1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
কিশোরগঞ্জে লাম্পিস্কিন রোগে পশুর মৃত্যুতে চিকিৎসক আটক:পুলিশের সহায়তায় উদ্ধার - দৈনিক দেশেরকথা
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৩:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বেইলি রোডসহ সব আবাসিক স্থাপনায় রেস্টুরেন্ট বন্ধ চেয়ে রিট মহিপুর মৎস্য আড়ৎ পট্টিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে,ফায়ার ফাইটারের মাথায় আঘাত গাইবান্ধার কাবিলের বাজার মদিনাতুল উলুম হাফিজিয়া ক্বওমী মাদ্রাসা ও এতিমখানার ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত। বরিশাল প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী নাসির উদ্দিন বাবুল আর নেই মেলায় ৬০ কোটি টাকার বই বিক্রি ডিসি সম্মেলন শুরু কাল কাল থেকে প্রতি লিটার সয়াবিন তেল ১৬৩ টাকায় বিক্রি হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির মামলা, চলবে নিউইয়র্ক আদালতে সশস্ত্র  বাহিনী শান্তিরক্ষা মিশনে অবদান রেখে সুনাম বয়ে আনছে: প্রধানমন্ত্রী গাছে যুবকের ঝুলন্ত লাশ, হত্যা না আত্মহত্যা

কিশোরগঞ্জে লাম্পিস্কিন রোগে পশুর মৃত্যুতে চিকিৎসক আটক:পুলিশের সহায়তায় উদ্ধার

আনোয়ার হোসেন
  • প্রকাশ বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

 154 বার পঠিত

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি>নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় দিন দিন বেড়েই চলছে গবাদিপশুর লাম্পি স্কিন রোগ। ওইরোগে আক্রান্ত হয়ে চাঁদখানা ইউনিয়নের উত্তর চাঁদখানা ফকির পাড়ায় এক গরিব কৃষকের ২ লাখ টাকা দামের একটি এড়ে (আড়িয়া) গরৃু মারা গেছে।

গরুটি ২১দিন চিকিৎসার পর গত মঙ্গলবার  রাত সাড়ে ১২টার দিকে  চিকিৎসারত অবস্থায় চিকিৎসকের সামনে মারা যায়।  এঘটনায় কৃষক সাহাদৎ আলী  চিকিৎসকে  আটকিয়ে রাখলে পৃুলিশ তাদের উদ্ধার করে।

সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে ফকির পাড়া গ্রামের এজার মামৃুদের পৃুত্র সাহাদৎ আলী   আগামী ইদ উল  আযহার কোরবানীর জন্য একটি উন্নত জাতের ফ্রিজিয়ান গরু   মোটাজাত করে প্রস্তৃুত করেছিলেন।

ওই গরুটি  ২১ দিন আগে লাম্পি স্কীন রোগে আক্লান্ত হয়।  আক্লান্ত গরুটির চিকিৎসা করেন উপজেলা প্রানী সম্পদ দপ্তরের ভ্যাটেরেনারী সার্জন ডাক্তার নাহিদ সুলতানসহ আরোদুজন পল্লী চিকিৎসক । এতে কৃষক সাহাদাৎ আলীর খরচ হয় ১৫ হাজার টাকা।

গতকাল মঙ্গলবার রাত সারে ১২ টার দিকে ক্ষতস্থান থেকে রক্তক্ষরন শুরু হলে শাহাদাৎ আলী প্রথমে উত্তর দুরাকুটি গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আমিয়ার রহমানকে ফোন করে।  আমিয়ার রহমান ভেটেরেনারী সার্জনকে ফোন দিলে সার্জেনের সাথে আরো একজন সহযোগী চিকিৎসক ঘটনাস্থলে এসে গরুটিকে চিকিৎসা দিতে থাকে ।

কৃষক শাহাদাৎ আলী অভিযোগ করে বলেন পল্লী চিকিৎসক আমিয়ার রহমান রক্তক্ষরনের জায়গায় কাস্তে আগুন করে প্রথমে ছ্যাকা দেয় এরপর একটি স্যালাইন পুশ করে ওই স্যালাইনে একটি ইনজেকশন ভেঙ্গে দিলে গরুটি পা আছার মেরে সঙ্গে সঙ্গে মারা যায়।

ডাক্তারদের চিকিৎসার ধরন দেখে কৃষক সাহাদাৎ আলী তাদের আটক করে ক্ষতিপুরন দাবি করেন। আটককৃতরা পরে পুলিশের সহযোগিতায় সেখান থেকে উদ্ধার হয়।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা প্রাণী  সম্পদ দপ্তরের ভেটেরেনারী সার্জন ডাক্তার নাহিদ সুলতানের কাছে গরুর মালিক শাহাদাৎ হোসেনের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন ,আক্র্রান্ত গরুটির পা দিয়ে অনবরত রক্ষখরন হচ্ছিল তাই কাস্তে গরম করে ক্ষতস্থানে লাগানো হয়েছিল। এটাকে কটারাইজেশন বলে।

গরুটির চিকিৎসা করাতে ১৫ হাজার টাকা নিয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা সঠিক নয় পল্লী চিকিৎসকরা কিছু টাকা নিয়ে থাকতে পারে। আটকের বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, আমাকে আটক করেনি পল্লী চিকিৎসকদের আটক করেছিল।পরে পুলিশের সহযোগিতায় তাদেরকে উদ্ধার করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ রাজীব কুমার রায় বলেন,  দুইজন পল্লী চিকিৎসককে গরুর মালিক আটকিয়ে রেখেছিলেন  এমন খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করা হয়।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park