1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
  3. mdtanjilsarder@gmail.com : Tanjil News : Tanjil Sarder
হবিগঞ্জে শিক্ষিকা সুপ্তা রানী দাসের মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা। - দৈনিক দেশেরকথা
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ব্যাংকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জমার ক্ষেত্রে গ্রাহককে কোনো ধরনের প্রশ্ন না করার নির্দেশ: বাংলাদেশ ব্যাংক আবারও বাড়ল এলপিজি গ্যাসের দাম কিশোরগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষক জেল হাজতে কিশোরগঞ্জে পারিবারিক পুষ্টির চাহিদা পুরণে পেঁপের চারা বিতরণ লেখাপড়া করতে চায় প্রতিবন্ধী রজনী এবার বাবার পদাংক অনুসরণ করে সিনেমায় নাম লেখালেন ডিপজলকন্যা ওলিজা মনোয়ার দেশেরর ইতিহাসে সর্বোচ্চ সোনার দামের রেকর্ড ইবিতে ছাত্র ইউনিয়নের দিনব্যাপী ‘সাংগঠনিক কর্মশালা’ অনুষ্ঠিত আগামীকাল রবিবার চট্টগ্রামে ৩০টি প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জুন মাসের পর ডিজেল দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ

হবিগঞ্জে শিক্ষিকা সুপ্তা রানী দাসের মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা।

লিটন পাঠান
  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২

 20 বার পঠিত

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি>হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার সময় শিক্ষক সুপ্তা রানি দাশকে (৩০) সিএনজি অটোরিকশার চালক ও তার সহযোগীরা অপহরণ করে ধর্ষণের চেষ্টা করে, বাধা দেওয়ায় অটোরিকশার ভেতরেই তাকে মারধর করে দুর্বৃত্তরা এরপর রাস্তায় ফেলে দিয়ে দুর্ঘটনা বলে সাজানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মারা যান তিনি।

সোমবার (১৫ আগস্ট) সুপ্তা রানীর ছোট ভাই পুলক দাশ এ ঘটনায় বাদী হয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেছেন মামলায় চুনারুঘাট উপজেলার বদরগাজী গ্রামের মৃত আব্দুল হাসিমের ছেলে সিএনজিচালক মতিন মিয়াকে (৪৫) আসামি করা হয়।

এ ছাড়া তিন-চারজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয় সুপ্তা রানী দাশ শায়েস্তাগঞ্জ নিশাপট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন। তিনি সদর উপজেলার মামদপুর গ্রামের পবিত্র রঞ্জন দাশের মেয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শায়েস্তাগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলার পর আসামি মতিন মিয়াকে গ্রেপ্তার করতে অভিযান চালানো হয়েছে।

পাশাপাশি ওই সিএনজি অটোরিকশাটি উদ্ধারের চেষ্টা করছে পুলিশ তবে মামলা করতে দেরি হওয়ায় আসামিরা পালানোর সুযোগ পেয়েছে বলে মনে করেন তিনি মামলা সূত্রে জানা যায়।গত ১১-আগস্ট সকাল ৯টার দিকে বিদ্যালয়ে যাওয়ার জন্য শায়েস্তাগঞ্জ শহরের পোস্ট অফিস-সংলগ্ন সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ডে আসেন সুপ্তা রানি পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী সিএনজি অটোরিকশাচালক মতিন মিয়া তার সহযোগীদের নিয়ে সেখানে অবস্থান করছিলেন সুপ্তা রানী সেখানে আসা মাত্রই মতিন মিয়া তাকে ডেকে সিএনজিতে তোলেন।বিদ্যালয়ের কাছাকাছি গাড়িটি যাওয়ার পর সুপ্তা রানি তাকে নামিয়ে দিতে বলেন।

কিন্তু সেখানে না নামিয়ে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে রঘুনন্দন পাহাড়ের দিকে নিয়ে যেতে থাকেন চালক ও তার সহযোগীরা। এ সময় সুপ্তা ধস্তাধস্তি করলে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে চালক ও তার সহযোগীরা মারাত্মক আঘাত করেন।

এক পর্যায়ে সংজ্ঞাহীন হয়ে গেলে মারা গেছেন মনে করে সুপ্তা রানিকে চালক ও তার সহযোগীরা রাস্তায় ফেলে দেয়। বিষয়টিকে দুর্ঘটনা বলে চালিয়ে দিতে চেয়েছিল তারা পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান হবিগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম মো. মাওলা ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমাদের পক্ষ থেকে বিষয়টি পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এখন যেহেতু মামলা হয়েছে পুলিশ সঠিক তদন্ত করে সত্য ঘটনা উন্মোচিত করবে বলে আশা করছি।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park