1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
সিনিয়র শিক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে ইবিতে অন্তিম উৎসব - দৈনিক দেশেরকথা
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ১২:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশনা কিশোরগঞ্জে থাই গেম ও  ভিসা   প্রতারকচক্রের ৫ সদস্য আটক  গলাচিপায় কবর ঘিরে মাজার বাণিজ্য,করা হচ্ছে জটিল ও কঠিন রোগের চিকিৎসা শাহীকে ঈদুল আজহায় ৪ লাখ টাকায় বেচতে চান মুকুল মিয়া  কিশারগঞ্জ থাই ও ভিসা প্রতারণার অভিযােগে  ৩ যুবক কারাগারে কুয়াকাটা সৈকতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান লিফলেট বিতরণ গরমে কদর বাড়ায় নলডাঙ্গায় তালের শাঁস বিক্রিতে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সদরপুরে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়লেন ওবায়দুল কাদের

সিনিয়র শিক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে ইবিতে অন্তিম উৎসব

মোঃ হাছান
  • প্রকাশ বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

 173 বার পঠিত

কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে দুইদিনব্যাপী অন্তিম উৎসব। সাদ্দাম হোসেন হল কর্তৃক আয়োজিত উক্ত আয়োজনে ২০১৬-১৭ এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হবে। উক্ত আয়োজনে সভাপতিত্ব করবেন হল প্রভোস্ট প্রফেসর ড. আসাদুজ্জামান এবং অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা। 

বুধবার এবং বৃহস্পতিবার (২০ ও ২১ সেপ্টেম্বর)  অনুষ্ঠিত হবে উক্ত আয়োজন। মূলত সিনিয়র শিক্ষার্থীদের বিদায় এবং নবীন শিক্ষার্থীদের বরন করার উদ্দেশ্যে হবে এ আয়োজন । 

বুধবার বিকেল থেকে অনুষ্ঠানটি শুরু হয় গিটারের সূরের মূর্ছনা দিয়ে। তারপর বিভিন্ন গানের আনপ্লাগড সেশন, আল্পনা/গ্রাফিতি, আতসবাজি উৎসব, ফানুস সন্ধ্যা, গালা ডিনার, এবং অন্যান্য উপক্রিয়া সম্পন্ন হবে। 

বৃহস্পতিবারে, উক্ত আয়োজনের প্রধান আকর্ষণ হবে দেশের বিভিন্ন ব্যান্ডের সংগীত শিল্পীদের উপস্থিতিতে জমকালো কনসার্ট। কনসার্টে সঙ্গীত পরিবেশনা করবেন ভাইপারস ব্যান্ড, সোনার বাংলা সার্কাস, মাশা, এবং অন্যান্য শিল্পীগণ। 

অন্তিম উৎসবের ব্যাপারে, হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ওয়াসিম সোবাহানের সাথে আলাপ হয়। ঐ শিক্ষার্থী বলেন, সিনিয়র ভাইদের বিদায় অত্যন্ত দুঃখের। তাদের সাথে এতোটা বছর পরিবারের মতো মিলে থেকেছি বিপদে আপদে তাদের কাছে পেয়েছি । তারা চলে যাবে মনে হলেই মন খারাপ লাগে।”

হলের আবাসিক শিক্ষার্থী আবু সাঈদ বলেন, হলের প্রতিটা শিক্ষার্থী আমরা ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ থাকি কেউ অসুস্থ হলে তাকে দেখাশোনা আবার ঝগড়া হলে ভাইদের এগিয়ে আসা। সিনিয়র ভাইদের বিদায় উপলক্ষে এ আয়োজন আমাদের জন্য আনন্দের হলেও তাদের বিদায়ে হলে বয়ে আসবে বেদনা। 

কথা হয় হলের বিদায়ী শিক্ষার্থী রাকিব হাসানের সাথে তিনি বলেন, হলের আমারা সবাই একটা পরিবারের মতো এ পরিবার ছেড়ে চলে যাব ভাবলেই মনে ব্যথা অনুভব করি। তবে মৃদুল হাসান রাব্বি ও শিমুল খান তারাই এ অনুষ্ঠানের মূল দাবিদার, তাদের প্রচেষ্টার মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানটি সফল হয়েছে। 

তবে কিছু শিক্ষার্থী অভিযোগ করেন হলের অন্তিম উৎসব উপলক্ষে আবাসিক শিক্ষার্থীরা ৫৫৫ টাকা করে 

দেন। কিন্তু অনুষ্ঠানের সকল খরচ হল প্রশাসনের বহন করার কথা থাকলেও শিক্ষার্থীদের খরচ বহন করতে হচ্ছে। 

 সাদ্দাম হোসেন হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান বলেন, শিক্ষার্থীদের জন্য কোন আয়োজন করলে আমাদের ভালো লাগে প্রতিবার যেন এমন আয়োজন করা যায় সেদিকে খেয়াল রাখব। হলের সমস্যা সমাধানের বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, হলের সমস্যা যদি থাকে তাহলে অবশ্যই সমাধান করা হবে। 

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park