1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
রাঙ্গুনিয়ার ১৫০ বছরের প্রাচীণ বৈশাখী মেলা - দৈনিক দেশেরকথা
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৫:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মূল্যস্ফীতি যাতে নিয়ন্ত্রণে থাকে সে চেষ্টা করে যাচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিশোরগঞ্জে বিদ্যুৎস্পর্শে বৃদ্ধের মৃত্যু আজ থেকে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ শিকারে ৬৫ দিনের  নিষেধাজ্ঞা। নলডাঙ্গায় পারিবারিক কলহের জেরে গৃহবধুর আত্মহত্যা! কিশোরগঞ্জে ছোট্ট ভাইয়ের লাঠির আঘাতে বড়ভাই নিহত খাগড়াছড়িতে জেলা পর্যায়ে স্টেকহোল্ডার ক্যাম্পেইন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত  দূর্যোগ মোকাবেলায় ১কোটি সেচ্ছাসেবী প্রশিক্ষন দিয়ে গড়ে তুলবেন প্রতিমন্ত্রী মহিব খাগড়াছড়ি’র ঐতিহ্যবাহী বলী খেলা দেখতে কানায় কানায় পূর্ণ খাগড়াছড়ি স্টেডিয়াম সৌদি আরবে বাংলাদেশী প্রথম হজ যাত্রীর মৃত্যু আমতলী পৌরসভার দু’টি বাস স্টান্ড উদ্বোধন 

রাঙ্গুনিয়ার ১৫০ বছরের প্রাচীণ বৈশাখী মেলা

মুবিন বিন সোলাইমান
  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৪

 90 বার পঠিত

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের রাজারহাটে সপ্তদশ শতাব্দীর চাকমা রাজার রাজবাড়ীটির অবস্থান। পুরনো এই রাজবাড়ীকে ঘিরে দেড়শো বছর ধরে নববর্ষের দ্বিতীয় দিন বড়সড় করে বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়। তবে গত দশ বছর যাবত লিখিতভাবে বৈশাখী মেলায় আয়োজন করা না হলেও এখানে আগের মতোই চাকমাদের বিজু উৎসব ও পূজা অর্চনার আয়োজন হয়ে থাকে। আর এই উৎসবকে ঘিরে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও বসেছে বৈশাখী মেলা।

কালের বিবর্তনে বৈশাখী মেলা নামটি লিখিতভাবে হারিয়ে গেলেও এখনো এটি স্থানীয়দের কাছে বৈশাখী মেলা নামেই বেশ পরিচিত। তাই দূর দূরান্ত থেকে উৎসব ও মেলা দেখতে আসেন দর্শনার্থীরা। তবে কয়েকবছর ধরে উৎসব পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে গিয়ে মেলার আড়ালে এখানে স্থানীয় কয়েকজন নেতাদের মদদে চলে আসছিল কোটি টাকার জুয়ার আসর। তবে এই বছর পুলিশ-প্রশাসন, সাংবাদিক ও স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতায় জুয়া বিহীন বৈশাখী মেলা উপভোগ করলো সাধারণ জনগণ।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) মেলা ঘুরে দেখা যায়, বিজু উৎসবকে ঘিরে মেলায় পসরা সাজিয়ে বসেছে দোকানিরা। পিঠাপুলিসহ নানা বাঁশ-বেতের শৈল্পিক ব্যবহার্য অনেক উপকরণ দোকান বসেছে। দূর দূরান্ত থেকে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষ মেলা ও উৎসব দেখতে এসেছে। এদিকে সকাল থেকেই পুলিশের একটি টিমকে নিরাপত্তায় কাজে দেখা যায়।

এদিন বিকেলে উৎসব পরিদর্শনে আসেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মো. রায়হান মেহেবুব। তিনি জানান, উৎসবে রাঙ্গুনিয়া ছাড়াও বিভিন্ন উপজেলা থেকে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষ এসেছে। কোন বিচ্ছিন্ন

ঘটনা যাতে না ঘটে সেদিকে বিশেষ নজর রাখা হয়। এ বিষয়ে রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, আমরা মেলার আগে থেকে জুয়ার বিষয়ে সবাইকে সতর্ক করেছিলাম। সুন্দর ও সুশৃঙ্খল ভাবে উৎসব ও মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে প্রথমবারের মতো জুয়া বিহীন মেলা পাওয়ায় পুলিশ প্রশাসনের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন স্থানীয়রা।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park