1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
  3. mdtanjilsarder@gmail.com : Tanjil News : Tanjil Sarder
পৈতৃক সম্পত্তি ফিরে পেতে আইনের আশ্রয় নিয়েছেন আব্দুল গাফফার চৌধুরী। - দৈনিক দেশেরকথা
রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে বন্ধের দিনে বিদ্যালয়ের বটগাছ কাটছেন প্রধান শিক্ষক যোগ্য-সৎ-নির্ভিক ৪২ ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল চান পিরোজপুরের পুলিশ সুপার কিশোরগঞ্জে বাঁশঝাড়ে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা হবিগঞ্জে বেদে সম্প্রদায়ের লোকের মানবেতর জীবনযাপন করছে রাজাপুরে দুই ইজিবাইকের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো শিশু সিয়ামের শিক্ষাক্রম নিয়ে যে এত রকম কথা হচ্ছে তার মধ্যে অধিকাংশ হচ্ছে মিথ্যাচার: শিক্ষামন্ত্রী জামালপুরে সরিষার বাম্পার ফলন,গাছ তুলে শুকাতে ব্যস্ত কৃষকরা। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে: প্রধানমন্ত্রী মিষ্টি কুমড়া ও সিম চাষে সাবলম্বী ওবায়দুর বিজ্ঞান শিক্ষায় পিছিয়ে বাংলাদেশ, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে বিজ্ঞান শিক্ষার দৈন্যতা বড় একটি চ্যালেঞ্জ

পৈতৃক সম্পত্তি ফিরে পেতে আইনের আশ্রয় নিয়েছেন আব্দুল গাফফার চৌধুরী।

শিমুল তালুকদার
  • প্রকাশ বুধবার, ২৭ জুলাই, ২০২২
desherkotha

 40 বার পঠিত

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ বাবার নামে ক্রয়কৃত বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হয়েছেন ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলারআড়াইরশি গ্রামের মৃত আবুল হাশেম চৌধুরীর পুত্র ও কন্যারা।

দীর্ঘ দিন বাবার রেখে যাওয়া জমাজমি ফিরে পেতে এলাকার বিভিন্ন জনের কাছে ঘুরাঘুরি করেও কোন লাভ না-হওয়ার কারনে আইনের আশ্রয় নিয়েছেন পুত্রআব্দুল গাফফার চৌধুরী। তিনি তাঁর বাবা মৃত আবুল হাশেম চৌধুরীর নামেরপৈতৃক সুত্রে পাওয়া এবং হাশেম চৌধুরীর নামে ক্রয়কৃত সম্পত্তি ফিরে পেতে ফরিদপুর জেলার ভাংগা উপজেলার মুন্সেফ আদালতে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা নং ১৬১/১২,১৪৭/১২, এবং ৪৪/১৫. এবং ফরিদপুরআদালতেও একটা মামলা করেছেন যাহার নম্বর ৩১০/১৯. মামলা এখনো চলমান আছে বলে জানান মামলার বাদী আব্দুল গাফফার চৌধুরী।  তিনি এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপ কালে জানান, আমার বাবা ১৯৩৪ এবং ১৯৪৭ সালে স্থানীয় বাইশরশি বাবু দের নিকট থেকে  তাঁর নিজের নামে বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি ক্রয় করেছিলেন।

এবং আমার দাদার নামের সম্পত্তির ওয়ারিশ হিসেবে পাওয়া সহ সর্বমোট ৬ একর ৮০ শতাংশ জমির দাবী নিয়ে আদালতের সরাপন্ন হয়েছি। তিনি আরো জানান, আমি দীর্ঘদিন সরকারি চাকুরী করার কারণে বাড়ির বাইরে থাকার কারণে আমি আমার বাবার রেখে যাওয়া  সম্পত্তির খোঁজ খবর নিতে পারিনি।

গত ২০০৪ সালে আমি পেনসনে বাড়িতে আসার পরে আমার বাবার সব সম্পত্তির কাগজ পত্র উঠিয়ে দেখতে পাই যে আমার বাবার বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি রয়েছে। পরবর্তীতে আমি বিভিন্ন জনের নিকট ঘোরাঘুরি করে পরে আদালতের সরাপন্ন হয়েছি। বাবার রেখে যাওয়া সম্পত্তি ফিরে পেতে মাননীয় ভূমি মন্ত্রনালয়ের সু দৃষ্টিকামনা করছেন আব্দুল গাফফার চৌধুরী। 
 

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park