1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
জামালপুর ভোটার   তথ্য সংগ্রহকারীর ভুলে জীবিত মানুষ মৃত্যু - দৈনিক দেশেরকথা
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১১:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশনা কিশোরগঞ্জে থাই গেম ও  ভিসা   প্রতারকচক্রের ৫ সদস্য আটক  গলাচিপায় কবর ঘিরে মাজার বাণিজ্য,করা হচ্ছে জটিল ও কঠিন রোগের চিকিৎসা শাহীকে ঈদুল আজহায় ৪ লাখ টাকায় বেচতে চান মুকুল মিয়া  কিশারগঞ্জ থাই ও ভিসা প্রতারণার অভিযােগে  ৩ যুবক কারাগারে কুয়াকাটা সৈকতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান লিফলেট বিতরণ গরমে কদর বাড়ায় নলডাঙ্গায় তালের শাঁস বিক্রিতে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সদরপুরে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়লেন ওবায়দুল কাদের

জামালপুর ভোটার   তথ্য সংগ্রহকারীর ভুলে জীবিত মানুষ মৃত্যু

দেশেরকথা
  • প্রকাশ বুধবার, ২৪ আগস্ট, ২০২২

 128 বার পঠিত

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার গাইবান্ধা ইউনিয়নের নাপিতের চর শাহপাড়া গ্রামের মৃত নজু মিয়ার পুত্র ফজলুল হক পেংকু , হালনাগাদ ভোটার তথ‍্য সংগ্রহকারী কর্মী জীবিত থেকে তাকে মৃত দেখিয়েছেন। ২০১৯ সালে ভোটার তথ্য হালনাগাদের সময় ভুল তথ্য দিয়ে ওই ব্যক্তিদের মৃত দেখান তথ্য সংগ্রহকারী কর্মী। তা যাচাই-বাছাই ছাড়াই তাতে স্বাক্ষর করেন ভোটার তথ্য হালনাগাদে দায়িত্বে থাকা শনাক্তকারী ও সুপারভাইজাররা। ফলে ওই দিনমজুর ‘জীবিত’ থেকেও তিনি ভোটার তালিকায় ‘মৃত’ অবস্থায় আছেন।

সোমবার ২২ আগস্ট সরকারি বরাদ্দের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় নাম অন্তর্ভুক্ত করতে ইউনিয়ন তথ্যসেবা কেন্দ্রে অনলাইনে আবেদন করতে যান ফজলুল হক পেংকু। সেখানেই তিনি জানতে পারেন, তিনি আর জীবিত নেই। ভোটার তালিকায় তিনি ‘মৃত’।

রেকর্ডপত্রে ফজলুল হক পেংকু ‘মৃত’ থাকায় ‘জীবিত’ হওয়াটা এখন জরুরি হয়ে পড়েছে। কারণ, এটির ওপর নির্ভর করছে বেশ কিছু মৌলিক বিষয়। সম্পত্তি রক্ষা, ওয়ারিশ ও নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং সরকারি সুযোগ-সুবিধাসহ অনেক কিছু।

ভুক্তভোগী ফজলুল হক পেংকু বলেন, “সরকারি চালের কার্ডের জন্য আবেদন করতে গিয়ে জানতে পারি আমি নাকি মৃত‍্যু বরণ করেছি! আমার আবেদন করার সুযোগ নেই। পরে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সচিব ফিরোজ আমাকে জানান, ভোটার তালিকায় আমাকে মৃত দেখানো হয়েছে। তিনি ভোটার তালিকা সংশোধনের আবেদন করতে বলেন। আমি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবর আবেদন করেছি।”

ফজলুল হক আরও জানান, মৃত অবস্থার অবসান ঘটাতে জীবিত থেকেও নতুনভাবে ‘জীবিত’ প্রমাণ করতে  লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। এর জন্য তথ্যকেন্দ্র থেকে শুরু করে ইউপি চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত অফিসসহ নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় পর্যন্ত যেতে হচ্ছে তাকে। কিন্তু সমাধান সহজে পাচ্ছেন না তিনি।

ভোটার তালিকায় দেখা যায়, জীবিত ফজলুল হক পেংকু ভোটার তালিকায় মৃত! তার জন্ম তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৭ খ্রিষ্টাব্দ। ভোটার তালিকায় মৃত থাকায় তিনি সরকারি ভাতার জন্য আবেদন করতে পারছেন না।

এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সচিব সৈয়দ ফিরোজুল আলম ফিরোজ বলেন, “ভোটার হালনাগাদ করার সময় ওই ব্যক্তিকে ভুলক্রমে মৃত দেখানো হয়েছে। তিনি আবেদন করেছেন। ইউপি চেয়ারম্যান তার জীবিত থাকার প্রত্যয়নপত্র দিয়েছেন। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সেটা সংশোধন করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।”

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোক্তার হোসেন বলেন, “জীবিত ফজলুল হক পেংকুকে ভোটার তালিকায় ভুলক্রমে মৃত দেখানো হয়েছে। তিনি আবেদন করলে সংশোধন করে দেওয়া হবে।”

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park