1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
জাতীয় পরিচয় পত্রে নাম বিভ্রাটে বিপাকে পড়েছেন এক বীর মুক্তিযোদ্ধা  - দৈনিক দেশেরকথা
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৪:৫১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মূল্যস্ফীতি যাতে নিয়ন্ত্রণে থাকে সে চেষ্টা করে যাচ্ছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিশোরগঞ্জে বিদ্যুৎস্পর্শে বৃদ্ধের মৃত্যু আজ থেকে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ শিকারে ৬৫ দিনের  নিষেধাজ্ঞা। নলডাঙ্গায় পারিবারিক কলহের জেরে গৃহবধুর আত্মহত্যা! কিশোরগঞ্জে ছোট্ট ভাইয়ের লাঠির আঘাতে বড়ভাই নিহত খাগড়াছড়িতে জেলা পর্যায়ে স্টেকহোল্ডার ক্যাম্পেইন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত  দূর্যোগ মোকাবেলায় ১কোটি সেচ্ছাসেবী প্রশিক্ষন দিয়ে গড়ে তুলবেন প্রতিমন্ত্রী মহিব খাগড়াছড়ি’র ঐতিহ্যবাহী বলী খেলা দেখতে কানায় কানায় পূর্ণ খাগড়াছড়ি স্টেডিয়াম সৌদি আরবে বাংলাদেশী প্রথম হজ যাত্রীর মৃত্যু আমতলী পৌরসভার দু’টি বাস স্টান্ড উদ্বোধন 

জাতীয় পরিচয় পত্রে নাম বিভ্রাটে বিপাকে পড়েছেন এক বীর মুক্তিযোদ্ধা 

আসলাম উদ্দিন আহম্মেদ
  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ৯ মে, ২০২৪

 38 বার পঠিত

জাতীয় পরিচয় পত্রে (এনআইডি কার্ড) নাম বিভ্রাটে বিপাকে পড়েছেন কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার এক বীর মুক্তিযোদ্ধা। নির্বাচন অফিসে নাম সংশোধনের জন্য আবেদন জানালেও অজ্ঞাত কারণে দীর্ঘ দিনেও তা সংশোধন না হওয়ায় বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তিনিসহ তার পরিবার।

ভূরুঙ্গামারী সদর ইউনিয়নের আঙ্গারীয়া গ্রামের এই বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম শ্রী তরনী কান্ত রায়। স্থানীয়ভাবে তার ডাক নাম ললিত। পিতার নাম মহেন্দ্র কান্ত রায়। ভারতীয় মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় তার নম্বর হচ্ছে- ৪০৪৯৩, বাংলাদেশ বেসামরিক গেজেটে তার নং ১১৮৫ এবং লাল মুক্তি বার্তায় তার নং৩১৬০৪০৫৪৯। এ সকল তালিকায় তার নাম রয়েছে তরনী কান্ত রায়। শুধু তাই নয়, তার জন্ম নিবন্ধন এবং ১৯৭২ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য এই বীর মুক্তিযোদ্ধার টেবুলেশন সীটে (নম্বর পত্রে) নাম রয়েছে তরনী কান্ত রায়।

কিন্তু জাতীয় পরিচয় পত্রে তরনী কান্ত রায় এর পরিবর্তে ভুল বশতঃ তার ডাক নাম ললিত বর্মণ অন্তর্ভূক্ত হয়। প্রথম দিকে জাতীয় পরিচয় পত্রের গুরুত্ব অনুধাবন করতে না পারলেও পরবর্তীতে জাতীয় পরিচয় পত্রে এই নামের বিভ্রাট নিয়ে বিপাকে পড়লে তিনি সকল প্রমান পত্র, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার, ইউপি চেয়ারম্যান ও প্রধান শিক্ষকের প্রত্যয়ন পত্রসহ নির্বাচন অফিসে নাম সংশোধনের আবেদন (ক্রমিক নং এনআইডিসিএ ১১৮৪৮৩৫১) জানালেও দীর্ঘ দুই বছরেও তা সংশোধন না হওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে এই মুক্তিযোদ্ধাসহ তার পরিবারের সদস্যরা।

বীর মুক্তিযোদ্ধা তরনী কান্ত বলেন, আমি গৃহ ঋণের জন্য আবেদন করেছি কিন্তু নাম বিভ্রাটের কারণে গৃহ ঋণ পাচ্ছিনা। শুধু তাই নয় নাম বিভ্রাটের কারণে আমি অন্য কোন সুযোগ সুবিধাও পাচ্ছিনা।  তিন ছেলে, ছেলের বউ, নাতী-নাতনী এবং স্ত্রীকে নিয়ে তিনি কঠিন অবস্থায় দুঃচিন্তায় জীবন- যাপন করছি। 

তার স্ত্রী শ্রী জয়ন্তী  রানী জানান, জাতীয় পরিচয় পত্রে নাম সংশোধন করতে না পারায় লোকটা চিন্তায় চিন্তায় অসুস্থ হয়ে পড়েছে। ঠিকমতো খাওয়া দাওয়া করেনা। সবসময় দুঃচিন্তা করে। তার কিছু হয়ে গেলে আমাদের কী হবে ? প্রতিবেশী শংকর বিশ্বাস (৫০), আয়নাল হক (৬০) ও বিসাদী বর্মণ (৪৫) জানান, তরনী কান্তের ডাকনাম ললিত। তরনী কান্ত ও ললিত একই ব্যক্তি।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সদ্য সাবেক কমান্ডার মহি উদ্দিন আহমেদ জানান, তিনি একজন প্রকৃত ফ্রিডম ফাইটার (এফএফ)। ৬ নং সেক্টরের অধীন ঠাঁকুরগায়ে সে যুদ্ধ করেছে। তিনি জানান, ভুল বশতঃ জাতীয় পরিচয় পত্রে তার ডাক নাম ললিত বর্মন সংযুক্ত  হয়েছে। এটা সংশোধনের জন্য আমি প্রত্যায়ন পত্র দিয়েছি।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার সাইফ আহমেদ নাসিম মোবাইল ফোনে জানান,উপজেলা  নির্বাচনের ডিউটিতে অন্য উপজেলায় রয়েছি। আমি নতুন যোগদান করেছি। এব্যাপারে কিছুই বলতে পারছিনা। পরে দেখে জানাবো। তবে নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, পুরো নাম সংশোধনের বিষয়টি তাদের এখতিয়ারে নেই । এটা জাতীয় নির্বাচন অফিস থেকে করা হয়ে থাকে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম ফেরদৌস জানান, এ ব্যাপারে আমাকে কেউ অবগত করেনি। অবগত করলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park