1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
গাড়ি ভাংচুরের ভিডিও করায় সাংবাদিককে মারধর - দৈনিক দেশেরকথা
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহে আশ্রয়ণ বাসিন্দার শিশুদের মাঝে ডিম খাওয়ানো উৎসব  কিশোরগঞ্জে গ্রেনেড, মাইন্ড ও থ্রি-নটথ্রি রাইফেল উদ্ধার কিশোরগঞ্জে প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহে আশ্রয়ণ বাসিন্দার শিশুদের মাঝে ডিম খাওয়ানো উৎসব  রাঙ্গুনিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনার চুয়েটের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু  জলবায়ু পরিবর্তনে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশের বিদায় সম্বর্ধনা  স্ত্রীর কাপড় না আনায় বকুনি স্বামীর পিটুনিতে প্রাণ গেল গায়ত্রীর তীব্র তাপদাহে বশেমুরবিপ্রবিতে ভার্চুয়ালি ক্লাস, বন্ধ থাকবে সকল পরিক্ষা!! জনপ্রিয় অভিনেতা অলিউল হক রুমি আর নেই আজ বিশ্ব ধরিত্রী দিবস

গাড়ি ভাংচুরের ভিডিও করায় সাংবাদিককে মারধর

দেশেরকথা
  • প্রকাশ সোমবার, ২৮ মার্চ, ২০২২

 116 বার পঠিত

বাকৃবি প্রতিনিধি

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ২৬ মার্চের বিভিন্ন ঘটনার সিসি টিভি ফুটেজ দেখতে চাওয়া নিয়ে ছাত্রলীগের একপক্ষ রাস্তা অবরোধ ও গাড়ি ভাংচুর করে। এসময় পেশাগত দায়িত্ব পালন করার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সাংবাদিকের ফোন কেড়ে নিয়ে মারধর করে ছাত্রলীগের কয়েকজন উচ্ছৃঙ্খল নেতাকর্মী। আহত সাংবাদিক ময়মনসিংহ লাইভ অনলাইন পোর্টালে কর্মরত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ওমর আসিফ। সোমবার বিকাল সোয়া ৫ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেডিয়াম সংলগ্ন নিরাপত্তা শাখার সামনে ওই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষ্যদর্শী সূত্রে জানা যায়, ২৬ মার্চের ছাত্রী লাঞ্ছনার ঘটনার সিসি টিভি ফুটেজ চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখায় বিক্ষোভ করে ছাত্রলীগের একপক্ষ। তারা বাকৃবির হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হল, ফজলুল হক হল, শামসুল হক হল ও ঈশা খাঁ হলের ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। বিক্ষোভের একপর্যায়ে নিরাপত্তা শাখার উভয় পাশের রাস্তা বন্ধ করে দেন আন্দোলনকারীরা। ওই সময় একটি প্রাইভেট কার ভাংচুর করা হয় এবং ড্রাইভারসহ গাড়ির যাত্রীদের মারধর করা হয়। গাড়ি ভাংচুরের ভিডিও ধারণ করতে গেলে ময়মনসিংহ লাইভ অনলাইন পোর্টালে কর্মরত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ওমর আসিফের উপর চড়াও হয় শামসুল হক হল ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শাহীন সুমনসহ আরও কয়েকজন। এসময় তারা কিল ঘুষি মারতে থাকে সাংবাদিক আসিফকে। মারধরের সময় তার ফোন ছিনিয়ে নেওয়া হয় এবং অকথ্য ভাষায় তাকে গালিগালাজ করা হয়। পরে আহত ওমর আসিফকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলথ কেয়ার সেন্টারে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ঘটনাস্থলে বাকৃবি রিসার্চ সিস্টেমের (বাউরেস) পরিচালক অধ্যাপক ড. আবু হাদী নূর আলী খান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মহির উদ্দীন, সহকারী প্রক্টর ড. মো. শফিকুল ইসলাম ও ড. মো. রিজওয়ানুল হক উপস্থিত ছিলেন।

পরে সন্ধ্যার দিকে সাংবাদিক ওমর আসিফের উপর হামলার ঘটনায় ওই হলগুলোর বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশী নেতা ইমতিয়াজ আবির, আবু রায়হান মিথুন, সজীব চন্দ্র সরকার, নিলয় মজুমদার ও মিফতাহ সাংবাদিকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা চান। ওই আন্দোলন ও ভাংচুরের সাথে তাদের কোনো সম্পৃক্ততা ন্ইে বলে জানান।

আহত সাংবাদিক ওমর আসিফ বলেন, ‘ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা গাড়ি ভাংচুরের সময় পেশাগত দায়িত্ব পালন করছিলাম। এসময় শামসুল হক হল ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শাহীন সুমনসহ আরও কয়েকজন আমার উপর হামলা করে। আমি এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাই ও সুষ্ঠু বিচার চাই।’

তবে অভিযুক্ত শাহীন সুমন বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি আন্দোলনে উপস্থিত ছিলাম। কিন্তু আমি কারো গায়ে হাত তুলিনি।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মহির উদ্দীন বলেন, ‘এ ঘটনায় আমি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। আমি এর বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park