বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৭:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আত্রাইয়ে দর্শনীয় ষাঁড় সম্রাটের দাম হাঁকা হয়েছে ১২ লাখ টাকা রাণীশংকৈলে পুকুড়ের পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু জামালপুরে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের অভিযোগ,থানায় মামলা মতলব উত্তরে ডাক্তারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পাল্টাচ্ছে হাসপাতালের পরিবেশ, বাড়ছে সেবার মান কাল থেকে গবিতে ঈদুল আযহার ছুটি  শুরু দম ফেলার ফুরসত নেই ত্রিশালের কামারদের! ছেলের সামনে বাবাকে  কুপিয়ে হত্যা, পিতা-পুত্র গ্রেফতার… রাণীশংকৈলে বিপুল উপস্থিতিতে শিক্ষক আইরিনের জানাযা ও দাফন সম্পন্ন চলনবিলে কৃষকের ঘরে উঠতে শুরু করেছে নতুন পাট, কৃষকের ফুটে উঠেছে রঙিন হাঁসি পাবনায় তীব্র লোডশেডিংয়ে দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ, ঈদ বাজারে লোকসানের আশঙ্কা

অসদাচারণ ও দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় মোরেলগঞ্জের সেই শিক্ষককে শোকজ 

মোঃ এখলাস শেখ
  • প্রকাশ বৃহস্পতিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ৩১ বার-পাঠিত
মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি>বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের জিউধরা ইউনিয়নের ৯৫ নং বরইতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত  প্রধান শিক্ষক মোঃ নাসির হাওলাদারের বিরুদ্ধে  আনীত  নানা অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে সরকারি কর্মচারী ( শৃঙ্খলা  ও আপিল)   বিধিমালা,  ২০১৮ অনুযায়ী কেন বরখাস্ত করা হবে না অথবা শাস্তি প্রদান করা হবে না এই মর্মে  শোকজ করে  ১০ কর্মদিবসের মধ্য এর জবাব দিতে বলেছেন বাগেরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা  অফিস।
গত  ১৩ ফেব্রুয়ারি জেলা/ শিক্ষা / বাগের/ ৮৯/১  স্মারকের   জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার  মু. শাহ আলম স্বাক্ষরিত   একপত্রে এ শোকজ নোটিশ করা হয়েছে । এতে অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে আগামী ১০ কর্মদিবসের মধ্যে উক্ত নোটিশের জবাব  তার দপ্তরে  দাখিল করতে নির্দেশ  দেওয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, উপজেলার  ৯৫ নং বরইতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ নাসির হাওলাদারের বিরুদ্ধে ২০১৮-১৯ ও  ২০১৯-২০, ২০২০-২১ অর্থবছরের  স্লিপের বরাদ্ধ, রুটিন মেইনটেনেন্স বরাদ্দ, প্রাক-প্রাথমিকের বরাদ্দ, কন্টিজেন্স বরাদ্দ, বিদ্যালয়ে নৈশপ্রহরী চাকরি দেওয়ার নামে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগের তদন্ত করা হয়।
তদন্তে তার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার কথাও  এ শোকজ নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।   পাশাপাশি এতে তদন্ত কার্য শুরুর পূর্বে তদন্ত কর্মকর্তাদের বিভিন্ন মন্ত্রীদের সঙ্গে তার সরাসরি যোগাযোগের কথা বলে তদন্তকার্য প্রভাবিত  করার কথাও উল্লেখ রয়েছে।
এসব অভিযোগর তদন্তকারী কর্মকর্তা  ছিলেন বাগেরহাট  সদর উপজেলার  প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা  রুহুল কুদ্দুস।  তদন্তকালে তার সঙ্গে ছিলেন বাগেরহাট  সদর উপজেলার  সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাকিন বিল্লাহ এবং  মোরেলগঞ্জ উপজেলার  সহকারী  শিক্ষা কর্মকর্তা সজল মহালি।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By Theme Park BD