October 20, 2021, 7:46 pm
শিরোনামঃ
সিরিয়ায় রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা দুটি বোমা বিস্ফোরণ:১৩ সেনার মৃত্যু বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপন বরগুনায় ফেসবুকে পোষ্ট কমেন্ট করা নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ,আহত-৩ ৬ মাস ধরে বিকল আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পানির লাইন হায়দার গন্জ্ঞ বাজারের বেহাল দশা,উন্নয়নের ছোঁয়া নেই এক যুগ আত্রাইয়ে  হেলথ ক্যাম্পের শুভ উদ্বোধন  খুলনায় যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র ঈদ- ই মিলাদুন্নবী পালিত কিশোরগঞ্জে গ্রামীণ দৃশ্যপটে হারিয়ে যাচ্ছে মাছ ধরা  উসৎব  চাটখিল ভাড়াটিয়া সেজে দুই বছরের শিশু চুরি পিরোজপুর অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড মেইন রোড শাখা কর্তৃক “প্রবাসীর ঘরে ফেরা ঋণ বিতরণ”

মণিরামপুরে টিসিবির ট্রাকসেলে মানুষের উপচেপড়া ভীড়

নূরুল হক
  • আপডেট হয়েছেঃ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৪, ২০২১
  • 1 পড়া হয়েছে
মণিরামপুর

মণিরামপুর প্রতিনিধি>সরকার স্বল আয়ের মানুষের কথা বিবেচনা করে দেশব্যাপি টিসিবি (ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ)’র মাধ্যমে ভ্রাম্যমান ট্রাকসেলে ন্যায্যমূল্যে পেয়াজ, তেলসহ বিভিন্ন পণ্যসামগ্রি বিক্রয় শুরু করেছে ৬ অক্টোবর থেকে। আর তা চলবে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত। কিন্তু দেশের বৃহৎ উপজেলা যশোরের মণিরামপুরে মাত্র ৭জন ডিলার এ পণ্যসামগ্রি বিক্রয় করছেন।

আর এসব ডিলারকে যে পরিমান সামগ্রি বরাদ্দ করা হচ্ছে তা চাহিদার তুলনায় অত্যন্ত অপ্রতুল। ফলে পণ্যসামগ্রি কিনতে মানুষ টিসিবির ভ্রাম্যমান ট্রাক সেলে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। দীর্ঘ সময় লাইনে দাড়িয়েও অনেকেই পণ্যসামগ্রি না পেয়ে খালি হাতে বাড়ি ফিরছেন। পৌরশহরে টিসিবির অনুমোদিত ডিলার মেসার্স ফাহিম এন্টারপ্রাইজের ভ্রাম্যমান ট্রাকসেলের সামনে মানুষের উপচেপড়া দৃশ্য দেখে অনেকের সাথে কথা বলে জানাগেছে এসব চিত্র।

বুধবার বিকেলে ঘড়িরকাটায় তখন ঠিক পাঁচটা। পৌরশহরের দক্ষিনমাথায় সোনালী ব্যাংকের নিচে টিসিবির অনুমোদিত ডিলার মেসার্স ফাহিম এন্টারপ্রাইজের পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমান ট্রাকসেলে ন্যায্যমূল্যে বিক্রয় করা হচ্ছে পেয়াজ, তেল, চিনি ও ডাল। এসব পণ্যসামগ্রি কিনতে হাজরো নারী-পুরুষের দীর্ঘ লাইন পড়ে। কিন্তু উপস্থিত মানুষের চাহিদার বিপরিতে ডিলারকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে খুবই স্বল্পপরিমান সামগ্রি।

ফলে পণ্য সমগ্রি বিক্রি করতে ডিলারকে পড়তে হয় মহাবিপাকে। ফাহিম এন্টারপ্রাইজের মালিক আলমগীর হোসেন ইয়ার আলী জানান, সরকারের নির্ধারিত মূল্যে জনপ্রতি কিনতে পারবেন ৫৫ টাকা হারে চিনি ও মশুরডাল দুই কেজি করে, পেয়াজ ৩০ টাকা হারে চার কেজি এবং ভোজ্যতেল ১০০ টাকা হারে দুই লিটার। টিসিবির ডিলার জানান, এ মাসে তিনি প্রথম চালানে বরাদ্দ পেয়েছেন ভোজ্যতেল চার’শ লিটার, পেয়াজ ছয়’শ কেজি, চিনি তিন’শ কেজি ও ডাল তিন’শ কেজি। ভ্রাম্যমান ট্রাকসেলের এসব মালামাল এক থেকে দেড় ঘন্টার মধ্যেই বিক্রি করা শেষ হয়।

কিন্তু তখনও সেখানে শত শত মানুষের উপচেপড়া ভিড় থাকে। এরা পন্যসামগ্রি কিনতে না পেরে মলিনমুখে বাড়ি ফিরে যায়। এসময় কথা হয় বিজয়রামপুর গ্রামের গৃহবধু সকিনা বেগমের সাথে। ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি জানান, কষ্ট করে দুইঘন্টা ব্যাপী লাইনে দাড়িয়েও কোন পণ্য তিনি কিনতে পারেননি। একই অভিযোগ করেন দিনমজুর সিরাজুল ইসলাম, অসিম ঘোষ, আবুল হোসেন, গৃহবধূ ফিরোজা পারভীন, আকলিমা খাতুনসহ অনেকেই।

টিসিবির অপর ডিলার মেসার্স হীরা কনষ্ট্রাকশনের মালিক শাহিনুর কবীর শাহিন সংকোচ করে জানান, এ মাসে তিনি সব মিলিয়ে একবার বরাদ্দ পেয়েছেন মাত্র ১৬’শ কেজি সামগ্রি। কিন্তু উপচেপড়া ক্রেতাদের ভিড়ে তা বিক্রি করা রিতিমত জীবনবাজি হয়ে দাড়ায়। ফলে বেশি করে বরাদ্দ না দেওয়া হলে বিক্রি করা দুরুহ হয়ে পড়বে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ জাকির হাসান জানান, এখন থেকে পণ্যসামগ্রি বিক্রি করার বিষয়টি শক্তহাতে তদারকি করা হবে এবং যেসব ডিলার টিসিবি থেকে পন্যসামগ্রি উত্তোলন করেননি তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ...
কপিরাইট দৈনিক দেশেরকথা ২০২০-২০২১,এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By POS Digital
themesba-lates1749691102