1. alaminjhalakati@gmail.com : Al-amin khan : Al-amin khan
  2. news.desherkotha.bd@gmail.com : ARIF KHAN : ARIF KHAN
  3. arifkhanjkt74@gmail.com : daynikdesherkotha :
খুলনায় ২'শ গ্রাহকের ১২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া চক্রের এক ব্যক্তি আটক - দৈনিক দেশের কথা
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১২ অপরাহ্ন

খুলনায় ২’শ গ্রাহকের ১২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া চক্রের এক ব্যক্তি আটক

খুলনা প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত শুক্রবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৭ বার দেখেছেন

খুলনায় কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল নামক সংস্থা থেকে আর্থিক অনুদান প্রদান করার কথা জানিয়ে প্রায় ২শ’ গ্রাহকের ১১ লাখ ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি প্রতারক চক্র। এ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ বেলাল (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে তবে মুল হোতাকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারে নি পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া আসামী খুলনার রায়পাড়া মেইনরোডে অবস্থিত আজম খানের বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুল কাদের খানের ছেলে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায় ২০২০ সালের জুন মাসে বেলাল ও মিনা বেগম মুসলমান পাড়া ও বাঁশতলা এলাকার ২’শ জন মহিলাকে কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল নামক সংস্থা থেকে আর্থিক অনুদান প্রদান করার কথা বলে ফরাজীপাড়া খুলনা শাখায় প্রত্যেককে হিসাব খুলতে পরামর্শ দেয়। ওই এলাকার মহিলারা তাদের দুজনের কথা মতো সেখানে বই করেন।

প্রত্যেকটি হিসাবে নয় হাজার ৬শ’ টাকা অনুদান আসার পর একাউন্ট হোল্ডাররা টাকা তুলতে যায়। পুনরায় অন্য একটি অনুদানের কথা বলে সদস্যদের মাত্র ১৮ শ’ টাকা দিয়ে বাকী টাকা ওই দুই প্রতারক রেখে দেয়। গত ৩০ আগস্ট ওই সংস্থার সদস্য ও বাঁশতলা এলাকার বাসিন্দা মরিয়ম বেগম, সালমা ইসলাম স্বপ্না, জোৎস্না বেগম ও হালিমা আক্তার নদী সহ আরও অনেকে খুলনা মহানগরীর ময়লাপোতা মোড়স্থ অগ্রণী ব্যাংকে অনুদানের টাকা তুলতে যান।

ওই দু’প্রতারক তাদের নিকট টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা সদস্যদের বিভিন্ন প্রকার হুমকি প্রদান করে। সেখানে বলা হয় আগামী মাসে ৪০ হাজার টাকা অনুদান আসবে, যে সকল সদস্য টাকা দিবে না তখন তাদের নাম ওই অনুদানের তালিকায় দেওয়া হবে না। সদস্যরা মুসলমানপাড়া এলাকার স্থানীয় মোঃ জাকির হোসেনকে বিষয়টি জানালে তিনি তাদের কাছে জানতে গেলে সেখানেও ওই ব্যক্তির সামনে সদস্যদের হুমকি প্রদান করে প্রতারকরা।

এ ব্যাপারে মরিয়ম বেগম বাদী হয়ে খুলনা থানায় প্রতারক মিনা বেগম ও বেলাল হোসেনসহ অজ্ঞাত আরও তিন চার জনের বিরুদ্ধে ৮ সেপ্টেম্বর মামলা দায়ের করেন। আসামী বেলাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মুল হোতা মিনা বেগমকে এখনও আটক করতে পারেনি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খুলনা থানার এসআই মোল্লা জুয়েল রানা জানান, সহযোগী হিসেবে আসামী বেলাল হোসেন এখান থেকে কিছু টাকা আত্মসাৎ করেছে। মূল প্রতারক মিনা বেগমকে আটক করা যায়নি। তকে গ্রেপ্তারের প্রচেষ্টা চলছে। তাকে আটক করতে পারলেই সব ঘটনা পরিস্কার হবে যাবে বলে তিনি জানিয়েছেন

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। কপিরাইট @২০২০-২০২১
WEB DEVELOPMENT BY KB-SOFTWARES