1. alaminjhalakati@gmail.com : mdalminjkt Jhalakathi : mdalminjkt Jhalakathi
  2. arifkhanjkt74@gmail.com : daynikdesherkotha :
খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালের বর্জ্য ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট অব্যবহৃত - দৈনিক দেশের কথা
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে স্বাস্থ্য বিভাগকে করোনা সামগ্রী দিলো আ.লীগ পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হাসান আল মামুন এর পিতার মৃত্যুতে সংগঠনের নেতাদের শোক পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে মামলার আসামী ইউপি চেয়ারম্যান মেয়াজ্জেম হেসোনকে আড়াই মাসেও গ্রেফতার না করার অভিযোগ মনিরামপুরের সবার প্রিয় কাশেম স্যার আর নেই কুষ্টিয়া প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যার ঘটনায় পুলিশের এএসআই আটক চাটখিলে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রবাসির সম্পত্তি দখলের অভিযোগ। পিরোজপুরের স্বরূপকাঠীতে আনসার ও ভিডিপির নতুন ভবনের উদ্বোধন জবির সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা ১০ আগস্ট, ইদের আগেই হবে অ্যাসাইনমেন্ট কিশোরগঞ্জে আগ্রহ বাড়ছে প্লাস্টিকের বস্তায় আদা চাষ কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্য দিবালোকে মা-ছেলেকে গুলি করে হত্যা

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালের বর্জ্য ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট অব্যবহৃত

নুরআলম, খুলনা প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ২৮ বার দেখেছেন
daynikdesherkotha

জনবলের অভাবে খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে স্থাপিত বর্জ্য ট্রিটমেন্ট প্লান্ট অব্যবহৃত পড়ে আছে। ফলে মেডিকেল বর্জ্য জীবাণুমুক্ত না করেই বাইরে অপসারণ করা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।
হাসপাতালের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আমিরুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ২০১৫ সালের ২৩ এপ্রিল হাসপাতালটির মেডিকেল বর্জ্য ট্রিটমেন্ট প্লান্ট বরাদ্দ করা হয়। “২০১৯ সালের ১২ নভেম্বর সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান নিউ টেক জি টি লিমিটেড প্রায় আট কোটি ২৩ লাখ টাকা ব্যয়ে হাসপাতালে প্লান্টটি স্থাপন করে।”আমিরুল ইসলাম আরও বলেন, প্লান্টটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য একজন প্লান্ট অপারেটর, দুজন হেলপার ও দুজন বর্জ্য অপসারণকারী প্রয়োজন।

কিন্তু সেই জবনল নেই। “যাতে অকেজো হয়ে না যায় সেজন্য মাঝে মধ্যে প্লান্ট চালু করা হয়। তবে দক্ষ জনবল ছাড়া প্লান্টটির বয়লার চালাতে গেলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।” প্লান্ট চালু না থাকায় হাসপাতালের মেডিকেল বর্জ্য একটি এনজিওর কর্মীরা পিকআপে করে রাজবন্ধ এলাকায় সিটি করপোরেশনের ডাম্পিং গ্রাউন্ডে নিয়ে ফেলে আসেন বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) খুলনা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. মেহেদী নেওয়াজ বলেন, “বর্জ্যের মধ্যে মেডিকেল বর্জ্য সবচেয়ে বিপজ্জনক। আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতাল ছাড়া খুলনা বিভাগের অন্য কোনো হাসপাতালে এ বর্জ্য ট্রিটমেন্ট প্লান্ট নেই।” “প্লান্ট থাকার পরও পরিশোধন না করেই এই হাসপাতালের মেডিকেল বর্জ্য বাইরে অপসারণ করতে হচ্ছে।”গত বছর আবু নাসের হাসপাতালের পরিচালকের কাছে করোনা হাসপাতালের মেডিকেল বর্জ্য ওই প্লান্টে পরিশোধনের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছিল; কিন্তু তা সম্ভব হয়নি বলে মেহেদী জানান।

শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মো. রেজা সেকেন্দার বলেন, নতুন জনবল নিয়োগ অথবা হাসপাতালে থাকা কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে প্লান্টটি সচল করার জন্য তিনি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে চিঠি দিয়েছেন। কিন্তু এখনও কোনো অগ্রগতি হয়নি। বাধ্য হয়ে জীবাণুমুক্ত না করেই হাসপাতালের বর্জ্য বাইরে বের করতে হচ্ছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021
WEB DEVELOPMENT BY KB-SOFTWARES