1. alaminjhalakati@gmail.com : mdalminjkt Jhalakathi : mdalminjkt Jhalakathi
  2. arifkhanjkt74@gmail.com : daynikdesherkotha :
কিশোরগঞ্জে আবারও সোনালী আাঁশ পাটে মনোযোগ দিয়েছেন চাষি - দৈনিক দেশের কথা
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
নির্বাচনী প্রচারনার শেষের দিকে রাজাপুরের ইউনিয়ন গুলোতে জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ,চলছে প্রচার ও উঠান বৈঠক ব্যক্তিগত কারণে আত্মগোপনে ছিলেন আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান। পিরোজপুরে সদর উপজেলায় নৌকা প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ সুনামগঞ্জের যাদুকাটায় নৌকা ডুবে যুবক নিখোঁজ : উদ্ধার ২ খুলনায় ভূমিহীনদের গৃহনির্মাণ কাজ শতভাগ সম্পন্ন, রবিবারে ১,৩৫১ পরিবারের মাঝে হস্তান্তর ঝালকাঠি পৌর নির্বাচনে নারী ভোটাররাই প্রার্থীদের একমাএ ভরসা মানবতার ফেরিওয়ালা সাংবাদিক এনায়েত ফেরদৌস জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকীর আলোচনা সভায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল কিশোরগঞ্জে মুজিব পল্লীতে মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছে ১৭০ গৃহহীনপরিবার বিরামপুরে খড় বোঝাই ভ্যানে মিললো ৩৪ বোতল ফেনসিডিল,আটক-২

কিশোরগঞ্জে আবারও সোনালী আাঁশ পাটে মনোযোগ দিয়েছেন চাষি

আনোয়ার হোসেন-কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত সোমবার, ৩১ মে, ২০২১
  • ৩৪ বার দেখেছেন
সোনালী আাঁশ

বিগত কয়েক বছর থেকে পাট শিল্পের নানানমুখী সমস্যায় তার নিজস্ব স্বকীয়তা হারালে নীলফামারী কিশোরগঞ্জের পাট চাষীরা লোকসান গুনতে গুনতে সোনালী আঁশ পাট চাষে মুখ ফিরিয়ে নেন।বর্তমান সরকার পাটকলগুলো পুনরায় চালুর পাশাপাশি পাটের বহুমুখী ব্যবহারে গুরুত্ব দেয়াই এ উপজেলায় দিন দিন বাড়ছে এর চাষাবাদ।

আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় পাটের ভাল ফলনের স্বপ্ন বুনছেন।আশানুরূপ দামও আশা করছেন চাষিরা।স্থানীয়রা জানান,কয়েক বছর আগে পাট চাষ করে তারা লোকসানে পড়েছিলেন।তাই অনেকে বাধ্য হয়ে অন্য ফসলের দিকে ঝুঁকে পড়েন।স্বল্প পরিসরে যে সব পুরনো চাষি পাটের আবাদ ধরে রেখেছিলেন তারাই আজ লাভবান হয়েছে।লাভ বাড়ছে তাই কৃষকরা ঝুঁকছেন পাট চাষে।সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নজর কাড়া পাটের আবাদ হয়েছে।

এসময় পুরনো পাট চাষি চাঁদখানা ইউপি’র লাভলু,বাহাগিলী উঃ দুরাকুটি ময়দান পাড়া গ্রামের সামাদ সরকার, সদর ইউপি’র ইসমাইল দোলাপাড়া গ্রামের ফজলু জানান,সরকার পলিথিনের ব্যবহার পুরোপুরি নিষিদ্ধ করে আরও বেশি পাটকল চালুর পাশাপাশি সর্বত্র পাটের ব্যবহার নিশ্চিত করলে পাটশিল্প ফিরে পাবে তার হৃত গৌরব।আর পাট চাষিরা আবারও ফিরবে সোনালী দিনে।উপজেলা কৃষি অফিসার হাবিবুর রহমান জানান, এ বছর ৩৬৯ হেক্টর জমিতে পাট চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। চলতি বছর চাষিরা বারি-১ ও ৯৮৯ জাতের পাটের চাষাবাদ করছেন।মাঠ পর্যায়ে পাট চাষিদের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি রোগবালাই সম্পর্কে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। পাটের ভাল দাম পেলে চাষিরা লাভবান হবেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021
WEB DEVELOPMENT BY KB-SOFTWARES