1. alaminjhalakati@gmail.com : mdalminjkt Jhalakathi : mdalminjkt Jhalakathi
  2. arifkhanjkt74@gmail.com : daynikdesherkotha :
কালিয়াকৈর সেফটি ট্যাংকি থেকে গৃহ বধুর লাশ উদ্ধার - দৈনিক দেশের কথা
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৪:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে স্বাস্থ্য বিভাগকে করোনা সামগ্রী দিলো আ.লীগ পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হাসান আল মামুন এর পিতার মৃত্যুতে সংগঠনের নেতাদের শোক পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে মামলার আসামী ইউপি চেয়ারম্যান মেয়াজ্জেম হেসোনকে আড়াই মাসেও গ্রেফতার না করার অভিযোগ মনিরামপুরের সবার প্রিয় কাশেম স্যার আর নেই কুষ্টিয়া প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যার ঘটনায় পুলিশের এএসআই আটক চাটখিলে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রবাসির সম্পত্তি দখলের অভিযোগ। পিরোজপুরের স্বরূপকাঠীতে আনসার ও ভিডিপির নতুন ভবনের উদ্বোধন জবির সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা ১০ আগস্ট, ইদের আগেই হবে অ্যাসাইনমেন্ট কিশোরগঞ্জে আগ্রহ বাড়ছে প্লাস্টিকের বস্তায় আদা চাষ কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্য দিবালোকে মা-ছেলেকে গুলি করে হত্যা

কালিয়াকৈর সেফটি ট্যাংকি থেকে গৃহ বধুর লাশ উদ্ধার

মোঃ জলিল আহম্মেদ, কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত শনিবার, ২৯ মে, ২০২১
  • ৭৬ বার দেখেছেন
সেফটি ট্যাংকি

গাজীপুর জেলা কালিয়াকৈর উপজেলার বাশাকৈর দক্ষিন পাড়া গ্রামে ( মায়ের আপন ফুপাতো বোন) খালাকে ধর্ষন করা হয়েছে এবং নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।মঙ্গলবার রাতে তাকে নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করেছেন। বুধবার সকালে স্হানীয়দের সংবাদের ভিওিতে কালিয়াকৈর থানার পুলিশ কে জানানো হয়, পড়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার গাজীপুর তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে লাশটি প্রেরন করে।

স্হানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, ওই এলাকায়, মায়ের ফুপাত বোন (খালাকে) ধর্ষনের পর খুন করে একটি বসতবাড়ীর সেফটি ট্যাংকির ভেতরে রেখে পালিয়ে যায় খুনি ভাগিনা রাফি (২১)। সে টাংগাইল জেলার দেলদুয়ার থানার দুইল্যা গ্রামের মাসুদ রানার ছেলে। আর নিহত ব্যাক্তি হচ্ছে ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের কম্বলপাড়া গ্রামের সানোয়ার মিয়ার ছেলে রাসেলের স্ত্রী (২০)

আরও জানাযায়, একবছর আগে টাংগাইলের মির্জাপুর উপজেলার সলিমনগর গ্রামের আজাহার মিয়ার কন্যা সেতুর কালিয়াকৈর উপজেলায় কম্বলপাড়া গ্রামের মোঃ সানোয়ার মিয়ার ছেলে রাসেলের বিবাহ হয়।
বিয়ের পর তারা দুইজনে বাশাকৈর গ্রামে মোঃ লিয়াকত মিয়ার বাসায় ভাড়া থেকে রাসেল স্হানীয় এক করাতকলে কাজ করেন। তাদের বিয়ের পর টাংগাইলের দেলদুয়ার উপজেলার দুইল্ল্যা গ্রামের মাসুদ রানার ছেলে রাফি (২১) নামের এক যুবকের সাথে সেতুর পরকিয়ার সম্পর্ক ছিল। এই নিয়ে সেতু ও রাসেলের সংসারে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এদিকে গতকাল মঙ্গলবার রাফি বাশাকৈর এলাকায় তার মামা রুহুল আমিনের বাড়িতে বেড়াতে আসেন।
ঔদিন মাঝরাতে বিছিন্ন একটি কক্ষর ভেতরে একাধিক বার ধর্ষনের পর খুন করে পাশের বাড়ির একটি সেফটি ট্যাংকিতে লাশ ফেলে রেখে পালিয়ে যায় খুনি রাফি। এদিকে বুধবার সকালে বাড়ির উঠানে সেতুর রক্তাক্ত জামাকাপড় দেখে রাফির মামা রুহুল আমিন, তারপর আশেপাশে খোঁজ করার পড়ে এক পর্যায়ে পায়ের চিহ্ন আর রক্ত দেখে শনাক্ত করে পাশের বাড়ির একটি সেফটি ট্যাংকিতে গিয়ে দিয়ে সেতুর লাশ দেখতে পান।পরে স্হানীয়দের জানালে স্হানীয়রা পুলিশ ক্যাম্পে ফোনে খবর জানান। খবর পেয়ে ফুলবাড়ীয়া পুলিশ ক্যাম্প থেকে ঘটনা স্থানথেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। ততক্ষণে ধর্ষক রাফি পুলিশের উপস্থিতির খবর পেয়ে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে রাফির আপন খালা ময়না বলেলেন, আমাদের সন্দেহ রাফি খুন করে পালিয়েছে। আমরা শুনছি রাফির সাথে সেতুর অবৈধ সম্পর্ক ছিল। কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য তাজউদ্দীন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে লাশটি পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী রাসেল ও ঘনাটার সাথে জড়িত থাকার সন্দহে আরিফ নামের একজন কে আটক করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021
WEB DEVELOPMENT BY KB-SOFTWARES