1. alaminjhalakati@gmail.com : mdalminjkt Jhalakathi : mdalminjkt Jhalakathi
  2. arifkhanjkt74@gmail.com : daynikdesherkotha :
কিশোরগঞ্জে বাণিজ্যিকভাবে হচ্ছে ড্রাগন ফলের চাষ-কৃষিতে সমৃদ্ধির হাতছানি - দৈনিক দেশের কথা
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে স্বাস্থ্য বিভাগকে করোনা সামগ্রী দিলো আ.লীগ পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হাসান আল মামুন এর পিতার মৃত্যুতে সংগঠনের নেতাদের শোক পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে মামলার আসামী ইউপি চেয়ারম্যান মেয়াজ্জেম হেসোনকে আড়াই মাসেও গ্রেফতার না করার অভিযোগ মনিরামপুরের সবার প্রিয় কাশেম স্যার আর নেই কুষ্টিয়া প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যার ঘটনায় পুলিশের এএসআই আটক চাটখিলে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রবাসির সম্পত্তি দখলের অভিযোগ। পিরোজপুরের স্বরূপকাঠীতে আনসার ও ভিডিপির নতুন ভবনের উদ্বোধন জবির সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা ১০ আগস্ট, ইদের আগেই হবে অ্যাসাইনমেন্ট কিশোরগঞ্জে আগ্রহ বাড়ছে প্লাস্টিকের বস্তায় আদা চাষ কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্য দিবালোকে মা-ছেলেকে গুলি করে হত্যা

কিশোরগঞ্জে বাণিজ্যিকভাবে হচ্ছে ড্রাগন ফলের চাষ-কৃষিতে সমৃদ্ধির হাতছানি

আনোয়ার হোসেন,কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত শনিবার, ২২ মে, ২০২১
  • ৫০ বার দেখেছেন
সুদূর চীন মালয়েশিয়া ইন্দোনেশিয়া ভিয়েতনামসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে উত্তরের জেলা নীলফামারী কিশোরগঞ্জে

সুদূর চীন মালয়েশিয়া ইন্দোনেশিয়া ভিয়েতনামসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে উত্তরের জেলা নীলফামারী কিশোরগঞ্জে বাণিজ্যিকভাবে শুরু হয়েছে ক্যাকটাস জাতীয় বিদেশী উদ্ভিদ ড্রাগন ফলের চাষ।গতানুগতিক কৃষির উপর নির্ভরশীল না হয়ে সময়ের প্রয়োজনে লাভজনক ফসল উৎপাদনে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন উপজেলার চাঁদখানা গ্রামে কামরুল ইসলাম কাজল ।

সরেজমিন সূত্রে জানা গেছে, গত বছর উপজেলার ওই গ্রামের কিশোরগঞ্জ -রংপুর ভিন্নজগৎ সড়কের পাশে আবরার এগ্রো ফার্মের ৭০শতক জমিতে ৫ শতাধিক পিলারে ২০ হাজার ড্রাগনের চারা রোপন করা হয়।চারা সংগ্রহ করেন যশোর জেলা থেকে।রোপণের ১০/১১ মাসে চারা গাছগুলো হুষ্ঠ পুষ্ঠ হয়ে ইতোমধ্যে ফল আসা শুরু হয়েছে।

সৌখিন প্রিয় কৃষক কাজল জানান,সংশ্লিষ্ট কৃষি অফিসের সার্বিক পরামর্শে প্রথম দিকে জমি প্রস্তুত করে নির্দিষ্ট দূরত্বে গর্ত করে জৈব কীটনাশক সার দিয়ে গর্ত ঢেকে রাখা হয়।এরপর প্রতিটি গর্তে পাশে ৫ ফুট উঁচু একটি করে সিমেন্টের আরসিসি পিলার বসানো হয় ড্রাগন গাছ দাঁড়ানোর জন্য।এরপর প্রতিটি পিলারের চার দিকে একটি করে মোট ৪টি ড্রাগন চারা রোপণ করা হয়।পরিচর্যা করে গাছ গুলো ৫ ফুট লম্বা হওয়ায় বাড়ন্ত গাছ ঝুলে থাকার জন্য প্রতিটি পিলারের মাথায় মোটর গাড়ির পুরোনো টায়ার বেঁধে দেয়া হয়েছে।বর্তমানে অধিকাংশ গাছে শাখা-প্রশাখা বের হয়ে প্রতিটি শাখা প্রশাখায় ডাটায় ফুল ও ফল আসা শুরু হয়েছে। আস্তে আস্তে শাখা-প্রশাখায় ঢেকে নেবে পুরো এলাকা।

তিনি আরো জানান, তাদের এ বাগান তৈরিতে খরচ হয়েছে প্রায় ৭লাখ টাকা। তবে প্রথমে খরচ হলেও পরবর্তীতে শুধু পরিচর্যা করলে ২০ বছর ড্রাগনের ফলন পাওয়া যাবে।একটি করে গাছ থেকে ২৫/৩০ কেজি ফলন হবে ।প্রতি কেজি ফলের মূল্য ৪শ থেকে৫ শ টাকা। এ বাজার দর অনুযায়ী ভালো ফলন হলে বাগান থেকে বছরে ১০লক্ষাধিক টাকার ফল বিক্রি করতে পারবেন। তবে শীতকাল ছাড়া বছরে সব সময় ভাল ফলন দেয়।

উপজেলার সংশ্লিষ্ট কৃষকেরা জানান,এ এলাকার মাটি ও আবহাওয়া ড্রাগন চাষের উপযোগী হওয়ায় সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা পেলে পুষ্টিগুণে ভরপুর এ ফলের কৃষি বিপ্লব ঘটবে। উপজেলা কৃষি অফিসার হাবিবুর রহমান জানান,উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ১ হেক্টর জমিতে ১৫/২০ জন কৃষকে ড্রাগন চাষে উদ্বুদ্ধকরণের পাশাপাশি পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।শখের বশে হলেও বাগান গুলো বাণিজ্যিকভাবে গড়ে উঠেছে।এ ফলে একদিকে এলাকার পুষ্টি পূরণ হবে অন্যদিকে কৃষকগণ অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়ে উঠবেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021
WEB DEVELOPMENT BY KB-SOFTWARES