1. alaminjhalakati@gmail.com : mdalminjkt Jhalakathi : mdalminjkt Jhalakathi
  2. arifkhanjkt74@gmail.com : daynikdesherkotha :
মঠবাড়িয়ায় নিখোঁজের শিশুর লাশ উদ্ধার - দৈনিক দেশের কথা
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
নির্বাচনী প্রচারনার শেষের দিকে রাজাপুরের ইউনিয়ন গুলোতে জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ,চলছে প্রচার ও উঠান বৈঠক ব্যক্তিগত কারণে আত্মগোপনে ছিলেন আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান। পিরোজপুরে সদর উপজেলায় নৌকা প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ সুনামগঞ্জের যাদুকাটায় নৌকা ডুবে যুবক নিখোঁজ : উদ্ধার ২ খুলনায় ভূমিহীনদের গৃহনির্মাণ কাজ শতভাগ সম্পন্ন, রবিবারে ১,৩৫১ পরিবারের মাঝে হস্তান্তর ঝালকাঠি পৌর নির্বাচনে নারী ভোটাররাই প্রার্থীদের একমাএ ভরসা মানবতার ফেরিওয়ালা সাংবাদিক এনায়েত ফেরদৌস জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকীর আলোচনা সভায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল কিশোরগঞ্জে মুজিব পল্লীতে মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছে ১৭০ গৃহহীনপরিবার বিরামপুরে খড় বোঝাই ভ্যানে মিললো ৩৪ বোতল ফেনসিডিল,আটক-২

মঠবাড়িয়ায় নিখোঁজের শিশুর লাশ উদ্ধার

পিরোজপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত শনিবার, ১৫ মে, ২০২১
  • ৫০ বার দেখেছেন
শিশুর লাশ উদ্ধার

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় নিখোঁজের সাড়ে তিন ঘন্টা পর রেজাউল করিম (০৯) নামে এক শিশুর লাশ খাল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। উপজেলার ধুপতি গ্রামের খালে এক জেলের জালে শিশুটির লাশ আটকা পড়ে। শনিবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ধুপতি গ্রামে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুটি ধুপতি গ্রামের মাইনুল ইসলাম হাওলাদারের ছেলে। শিশুটি স্থানীয় মধ্য সোনাখালী নূরানী ক্যাডেট মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ধুপতি গ্রামের মাইনুল ইসলাম হাওলাদার ও লাভলী বেগমের ছেলে রেজাউল করিম শনিবার সকালে বাড়ির পার্শ্ববর্তী খালপাড়ে প্রতিবেশী এক শিশুর সাথে খেলছিল। এসময় একটি বিড়ালকে তাড়া করেতে গেলে রেজাউল খালে পড়ে ডুবে যায়। পরে গ্রামবাসী ও মঠবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিস মিলে সাড়ে তিন ঘন্টা চেষ্টা চালিয়েও তাকে উদ্ধার করেতে পারেনি। ঘটনাস্থল থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে খালে ইউনুস নামে এক জেলের জালে শিশুটির লাশ আটকা পাড়ে।


স্থানীয়রা জানান, নিহত শিশু রেজাউল সাঁতার জানত না। তার যখন সাড়ে তিন বছর বয়স, তখন তার বাবা মাইনুল ইসলাম ও মা লাভলী বেগমের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। পড়ে লাভলী বেগম অন্যত্র বিয়ে করেন। আর মাইনুল ইসলাম শিশু রেজাউলকে তার বাবা-মায়ের কাছে রেখে ঢাকায় চলে যান। সেখানে তিনি গাড়ি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করলেও বাড়িতে আসা-যাওয়া নেই। এদিকে শিশু রেজাউল তার দাদা ইউসুফ হাওলাদারের কাছে ছিল। এ ঘটনায় শোকার্ত পরিবারে এখন শোকের মাতম চলছে। গ্রামবাসীর মাঝেও শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021
WEB DEVELOPMENT BY KB-SOFTWARES