1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
সন্তানের হার্টে ৫ ছিদ্র বাঁচাতে বাবার করুণ আকুতি - দৈনিক দেশেরকথা
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাদুরতলা স্পোর্টিং ক্লাবের শুভ উদ্বোধন ঝালকাঠির বাসন্ডা ব্রীজটি বার্ধক্যের ভারে যেন মরন ফাঁদ সদরপুরে মৎস্য আইনে মোবাইল কোর্ট,বাধ সহ ২৭ টি চায়না দোয়ারি ধ্বংস  রায়পুরে ডাকাতিয়া নদী পরিস্কার কর্মসূচীর উদ্বোধন সদরপুরে ৪ কেজি গাঁজা সহ ব্যবসায়ী কে আটক করেছে ডি বি পুলিশ  চীনের সাথে ৭টি প্রকল্প ও ২১ একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করলেন প্রধানমন্ত্রী ঝালকাঠিতে মাছ ধরার ফাঁদ তৈরীতে ব্যস্ত কারিগররা। চীন সফর শেষে বুধবার দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্নফাঁস:পিএসসির ৩ কর্মকর্তাসহ ১০ জন কারাগারে কোটা নিয়ে সব পক্ষের বক্তব্য শুনে ন্যায়বিচার করবে আদালত: আইনমন্ত্রী

সন্তানের হার্টে ৫ ছিদ্র বাঁচাতে বাবার করুণ আকুতি

আসলাম উদ্দিন আহম্মেদ
  • প্রকাশ শনিবার, ৪ মে, ২০২৪

 50 বার পঠিত

কু‌ড়িগ্রাম প্রতিনিধি>দ‌রিদ্র পরিবারে জন্ম নেওয়া ছোট্ট শিশু কাওছার। শিশুটির জন্মে তার বাবাও মায়ের আনন্দের সীমা ছিলো না।কিন্তু  আড়াই বছরের ফুটফুটে শিশু‌টির হার্টে বড় সমস্যা ধ‌রা পড়েছে। প্রতিমুহূর্তে তাকে নিয়ে দূঃচিন্তার শেষ নেই।  চি‌কিৎসক বলছেন তার হার্টে পাঁচটি ফুটো ধরা পড়েছে। দ্রুত চি‌কিৎসা করা না হলে তাকে বাঁচানো সম্ভব নয়। তার চি‌কিৎসার জন‌্য প্রায় সাড়ে চার লাখ টাকার প্রয়োজন। কিন্তু চি‌কিৎসার খরচ জোগাড় করতে না পেরে চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছেন মা-বাবা। 

বর্তমানে শিশু‌টি ইবনে সিনা পেডিয়াট্রিক কার্ডিয়াক কেয়ার সেন্টারে অধ্যাপক ডা. কাজী আবুল হাসানের তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন।

 সে কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের শুবদেবকুণ্ড গ্রামের নুর আলমের ছেলে। তিন সন্তানের মধ্যে সবার ছোট সে। 

 শিশু‌টির বাবার সাথে কথা হলে তিনি জানান, ‘আমি গরীব মানুষ। জমা-জ‌মি বলতে চার শতক বসত‌ভিটা। ব্যাটারিচালিত মিশুক রিকশা চা‌লিয়ে জী‌বিকা নির্বাহ করতাম। জন্মের পর থেকে কাওছার অসুস্থ। তার চি‌কিৎসা করাতে গিয়ে জীবিকা নির্বাহ করার একমাত্র অবলম্বন রিকশা‌টি বি‌ক্রি করে‌ছি। এরপরও এক‌টি এন‌জিও থেকে ৪০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে‌ছি। বর্তমানে সংসারের খরচ, এন‌জিওর কি‌স্তি তার ওপর সন্তানের চি‌কিৎসার ব‌্যয়ভার মেটাতে হি‌ম‌শিম খাচ্ছি। এমনও দিন যা‌য় না খেয়েই আমাদেরকে থাকতে হয়। আমরা না খেয়ে থাকতে পারলেও সন্তানরা তো থাকতে পারে না।

কথা বলতে বলতে একসময় অঝোরে কেঁদে ফেলেন তি‌নি। এমন প‌রিস্থি‌তিতে দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে পরিবার‌টি। ছোট সন্তান কাওছারের চি‌কিৎসার জন‌্য বিত্তবানসহ সমাজের সব স্তরের মানুষের ও এনজিওর সহযো‌গিতা কামনা করেছেন শিশু‌টির বাবা। 

 কাওছারের জন্য সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-অগ্রণী ব‌্যাংক, উলিপুর শাখার সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর- ৬২০০০২২০৮৫৬০৯, বিকাশ নম্বর-০১৮৮৯১৭৮৯৫৮।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park