1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : Daynik Kotha : Daynik Kotha
  3. mdtanjilsarder@gmail.com : Tanjil News : Tanjil Sarder
‘শিক্ষাক্ষেত্রে সুযোগ ও চাকরিতে তৃতীয় লিঙ্গের কোটা চাই' - দৈনিক দেশেরকথা
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সোনাইমুড়ী থানার নেতৃত্বে সাজা পরোয়ানাভূক্ত আসামী গ্রেফতার রাজাপুরে স্ত্রীকে হত্যা করে খাটের নিচে লুকিয়ে রাখলেন স্বামী প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে সন্মান জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে করে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করলেন আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মহিউদ্দিন মহারাজ কিশোরগঞ্জে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ক ব্র্যাকের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত রাণীশংকৈলে বিশ্ব নদী দিবসে র‍্যালি ও আলোচনা সভা কিশোরগঞ্জে প্রক্সি পরীক্ষার্থী আটক কিশোরগঞ্জে বিষপানে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা রাণীশংকৈলে দুর্গাপূজার প্রতিমার র্পূণ রূপ দিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পীরা কাঁচারাস্তা পাঁকা করনের দাবিতে দশমিনায় মানববন্ধন দ্বিতীয় বারের মতো ফাইনালে গণ বিশ্ববিদ্যালয়

‘শিক্ষাক্ষেত্রে সুযোগ ও চাকরিতে তৃতীয় লিঙ্গের কোটা চাই’

পলাশ চন্দ্র রায়
  • প্রকাশ সোমবার, ২ মে, ২০২২

 1 বার পঠিত

গবি প্রতিনিধি>সাভারে অবস্থিত গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে (গবি) প্রহরীর কাজ করে কয়েকজন তৃতীয় লিঙ্গের কর্মচারী ।
রবিবার (১ মে) শ্রমিক দিবসে নিজেদের ভাবনার কথা জানিয়েছেন গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে কাজ করা কয়েকজন তৃতীয় লিঙ্গের কর্মচারী।

তাদের মধ্যে নুর আলম নিলা বলেন, ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাই সম্মান করে। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার আগে সম্মান জিনিসটা বুঝতাম না।

এখন কাজ করে খাচ্ছি। আগে রাস্তাঘাটে চলাফেরা করার সময় মানুযের ধিক্কার সাড়া কিছু পাইনি। কিন্তু এখানে কাজের সুযোগ আমাকে নতুন জীবন দিয়েছে। তৃতীয় লিঙ্গের অনেকে বাইরে কালেকশন করছে।

যদি প্রতিটা সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অন্তত ৫ জন করেও নেওয়া হয়, তবে আর কেউ রাস্তাঘাট, বাসাবাড়ি, দোকানপাটে টাকা তুলবে না।’
সাহেদা সাহেদ বলেন, ‘এখানে কাজ করতে ভালো লাগে। আমরা যেভাবে কাজ করছি, সেভাবে যেন আমাদের অন্যরাও সুযোগ পায়।

সরকারের কাছে অনেক কিছু চাওয়ার আছে। তবে এখন আমাদের জন্য কোটা চাই। কোথাও আবেদন করতে গেলে আমাদের কোটা নেই। কি হিসেবে আমরা আবেদন করব? পহেলা মে শ্রমিক দিবস।

প্রত্যাশ্য থাকবে, সব শ্রমিক ভাইবােন যেন তাদের প্রাপ্ত সম্মান, সভ্য কাজের জায়গা, ভালােভাবে কাজের সুযোগ সঠিক মূল্যায়ন পায়।’
সুমন মিয়া বলেন, ‘এখানে যখন নতুন আসি তখন ভাবতাম, আমাদের সঙ্গে কেউ কথা বলবে কিনা। প্রায় ৪ বছর ধরে কাজ করার সুবাদে সবার সঙ্গে আন্তরিকতা তৈরি হয়ে গেছে। সবাই ভালােবাসে বলেই কাজ করতে পারছি।’

রাশেদ সোনালী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ার পরিবেশ এবং মানুষ অনেক ভালো। সবাই অনেক ভালো ব্যবহার করে। আমাদের কমিউনিটির মানুষজন যারা, তারা যেন আমাদের দেখে উৎসাহিত হয়। দেশে ভালাে ভালো যত কোম্পানি, এনজিও আছে তারা যেন আমাদের পাশে দাড়ায়।

আমাদের মধ্যে অনেকেরই শিক্ষাগত যােগ্যতা বেশি। তাদের যেন যােগ্যাতা অনুযায়ী ভালাে জায়গায় কাজের সুযােগ দেওয় হয়। শিক্ষাক্ষেত্রে আমাদের দূরবস্থা অনেক বেশি।

আমাদের শিক্ষা ক্ষেত্রে সুন্দর পরিবেশ ও সুযোগ করে দেওয়া হয়।’প্রসঙ্গত, সবাই মে দিবসে সকল কর্মজীবী মানুষকে তাদের অধিকার ও যোগ্য সম্মান করার আহবান জানান।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park