1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
  3. mdtanjilsarder@gmail.com : Tanjil News : Tanjil Sarder
রক্তের গ্রুপ জানতে পেরে খুশি দশমিনার কোমলমতি স্কুল-শিক্ষার্থীরা। - দৈনিক দেশেরকথা
রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে বন্ধের দিনে বিদ্যালয়ের বটগাছ কাটছেন প্রধান শিক্ষক যোগ্য-সৎ-নির্ভিক ৪২ ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল চান পিরোজপুরের পুলিশ সুপার কিশোরগঞ্জে বাঁশঝাড়ে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা হবিগঞ্জে বেদে সম্প্রদায়ের লোকের মানবেতর জীবনযাপন করছে রাজাপুরে দুই ইজিবাইকের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো শিশু সিয়ামের শিক্ষাক্রম নিয়ে যে এত রকম কথা হচ্ছে তার মধ্যে অধিকাংশ হচ্ছে মিথ্যাচার: শিক্ষামন্ত্রী জামালপুরে সরিষার বাম্পার ফলন,গাছ তুলে শুকাতে ব্যস্ত কৃষকরা। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে: প্রধানমন্ত্রী মিষ্টি কুমড়া ও সিম চাষে সাবলম্বী ওবায়দুর বিজ্ঞান শিক্ষায় পিছিয়ে বাংলাদেশ, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে বিজ্ঞান শিক্ষার দৈন্যতা বড় একটি চ্যালেঞ্জ

রক্তের গ্রুপ জানতে পেরে খুশি দশমিনার কোমলমতি স্কুল-শিক্ষার্থীরা।

রবিউল হাসান ডব্লিউ
  • প্রকাশ শনিবার, ৩০ জুলাই, ২০২২

 37 বার পঠিত

দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি>পটুয়াখালী জেলা, দশমিনা উপজেলা, ১২ নং দশমিনা সরকারি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়  বিনামূল্যে কোমলমতি  স্কুল শিক্ষার্থীদের রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করে সহযোগিতার হাত  বাড়িয়ে দিয়েছে  এক যুবক আল-আমিন । 

বিনামূল্যে নিজেদের রক্তের গ্রুপ জানতে পেরে ভীষণ আনন্দিত কোমলমতি স্কুল শিক্ষার্থীরা।

আজ শনিবার (৩০ শে জুলাই)  সকাল ৯.৩০ মিনিট সময়  শুরু করে বিকাল ৩.৫০ মিনিট পর্যন্ত ১২ নং দশমিনা সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে হয়। এতে ‘সহযোগিতা করেন দশমিনা ম্যাক্স পাওয়ার লিমিটেড নামে  একটি প্রতিষ্ঠান ও দশমিনা সেবা ইউনিট নামে একটি একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তাদের এই সুযোগ করে দেয়। এসময় বিদ্যালয়ের ৩৬০ জন শিক্ষার্থী তাদের রক্তের গ্রুপ বিনামূল্যে পরীক্ষার সুযোগ পান।

১২ নং দশমিনা সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়   পঞ্চম শ্রেণীর  শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, আমার রক্তের গ্রুপ আগে জানা ছিল না। আজ বিনা খরচে তা জানার সুযোগ পেলাম তাও নিজের স্কুল ক্যম্পাসে। এই কর্মসূচি আমাদের ভালো লেগেছে।  এবং আমার যখন ১৬ বছর হবে তখন সম্ভব হলে যে কোনও অসহায় রোগীকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবো।  তাতে মোটেওহলে আমাদের দেশের মুমূর্ষ রোগীর একটু হলেও  জীবন বাঁচাইয়া আমি শান্তি  পাবো।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park