1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanjkt74@gamil.com : arif khanh : arif khanh
ভর্তি পরীক্ষায় ফেল করেও ভর্তির সুযোগ, সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি সাধারণ শিক্ষার্থীদের - দৈনিক দেশেরকথা
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আমার বিশ্বাস তারা ন্যায়বিচার পাবে, হতাশ হতে হবে না,জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীরা কোথাও আগুন কিংবা ভাঙচুর করেনি: ডিবিপ্রধান চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলনের বিষয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উলিপুরে আলোকিত শিশু কন্ঠ পরিষদের আয়োজনে পবিত্র  আশুরা পালিত পবিত্র আশুরা উপলক্ষে বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ ছারছীনার পীর সাহেব হুজুর আর নেই দেশের সব স্কুল-কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা নলডাঙ্গায় ১১ অসহায় পরিবারের মাঝে চেক ও ঢেউটিন বিতরন বাদুরতলা স্পোর্টিং ক্লাবের শুভ উদ্বোধন ঝালকাঠির বাসন্ডা ব্রীজটি বার্ধক্যের ভারে যেন মরন ফাঁদ

ভর্তি পরীক্ষায় ফেল করেও ভর্তির সুযোগ, সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি সাধারণ শিক্ষার্থীদের

মোঃ হাছান
  • প্রকাশ সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০২৩

 132 বার পঠিত

ইবি প্রতিনিধি> ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ফেল করা শিক্ষার্থীদের নতুন করে ভর্তি পক্রিয়া চলছে। আজ সোমবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে বিষয়টি নিয়ে মিটিং করবেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে। 

বিষয়টি ঘিরে সকাল সাড়ে ১০ টায় উপাচার্য কার্যালয়ে অবস্থান নেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় পোষ্য কোটায় ফেল করা শিক্ষার্থীদের ভর্তি না করতে অনুরোধ করেন তারা। 

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে সবার অধিকার সমান থাকা দরকার। এখানে যদি পোষ্য কোটায় ফেল করা শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয় তাহলে কৃষককের শিক্ষার্থীরা কি অপরাধ করেছে?’ 

আন্দোলনরত শিক্ষার্থী হোসাইন মোহাম্মদ বুলবুল বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবিগুলো নিয়ে শিক্ষার্থীরা বারবার প্রশাসনের কাছে আসছে। প্রশাসন শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোর দিকে তেমন গুরুত্ব না দিয়ে কর্মকর্তারা দাবি করেছে ফেল করা শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিতে হবে। যা একদমই সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে যায়। যদি ফেল করা শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয় আমরা আন্দোলন করবো।’ 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে কর্মকর্তাদের সাথে বসবো। আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আমি শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো নোট করে নিয়েছি।’

প্রসঙ্গত, গত ১৯ অক্টোবর গুচ্ছ প্রক্রিয়ার অধীনে ভর্তি প্রক্রিয়া অফিসিয়ালি শেষ হয়েছে। নির্দিষ্ট শর্ত পূরণ করে পাশ নম্বর পেয়ে পোষ্য কোটায় ভর্তি হয়েছেন ২০ জন শিক্ষার্থী। ২০ নভেম্বর সোমবার কর্মকর্তা সমিতির পূর্ব আবেদনের প্রেক্ষিতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২৪ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park