1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
পাবনায় ডিবি পরিচয়ে ৮ লক্ষ  টাকা ছিনতাইয়ের রহস্য উদঘাটন - দৈনিক দেশেরকথা
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১১:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশনা কিশোরগঞ্জে থাই গেম ও  ভিসা   প্রতারকচক্রের ৫ সদস্য আটক  গলাচিপায় কবর ঘিরে মাজার বাণিজ্য,করা হচ্ছে জটিল ও কঠিন রোগের চিকিৎসা শাহীকে ঈদুল আজহায় ৪ লাখ টাকায় বেচতে চান মুকুল মিয়া  কিশারগঞ্জ থাই ও ভিসা প্রতারণার অভিযােগে  ৩ যুবক কারাগারে কুয়াকাটা সৈকতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান লিফলেট বিতরণ গরমে কদর বাড়ায় নলডাঙ্গায় তালের শাঁস বিক্রিতে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সদরপুরে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়লেন ওবায়দুল কাদের

পাবনায় ডিবি পরিচয়ে ৮ লক্ষ  টাকা ছিনতাইয়ের রহস্য উদঘাটন

শরিফুল ইসলাম
  • প্রকাশ শনিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

 111 বার পঠিত

গত ২৫সে আগষ্ট ২০২২ তারিখে আনুমানিক সকাল ১১.০০ ঘটিকার সময় পাবনা জেলার আমিনপুর থানাধীন মোবারকপুর গ্রামের মোঃ হাবিবুর রহমানের ছেলে মোঃ শরিফুল ইসলাম  জনতা ব্যাংক কাশিনাথপুর শাখা থেকে ৮,০০০০০/- (আট লাখ) টাকা নিয়ে ভ্যানযোগে আমিনপুর থানাধীন কাশিনাথপুর নগরবাড়ী মহা সড়কে নান্দিয়ারা গ্রামস্থ কবরস্থানের পাশে পাকা রাস্তার উপর পৌছানো মাত্র একটি সাদা মাইক্রোবাস ভ্যানের গতিরোধ করে দাড়ায়।

মাইক্রোবসের ভিতর থেকে বের হয়ে এসে কয়েক জন অজ্ঞাতনামক ব্যক্তি নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে টেনে হেচরে প্রাণ নাশের ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক মাইক্রোবাসের ভিতরে তুলে চোখ বেঁধে তার নিকট থাকা নগদ ৮,০০,০০০/-টাকা বলপূর্বক ছিনিয়ে নেয়। পারে  ঘটনার দিনই  দুপুর ০১.০০ ঘটিকায় উক্ত ভিকটিমকে আমিনপুর থানাধীন আলাদিপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে মাইক্রোবাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়।

উক্ত ঘটনার পরিপেক্ষিতে আমিনপুর থানায় একটি দস্যুতার মামলার রজু হয়। যাহার মামলা নং-২০ তারিখ-২৬/০৮/২০২২ইং ধারা-৩৯২/১৭০(পরিবর্তীত ধারা ৩৯৫/৩৯৭) পেনাল কোড ১৮৬০।
পাবনা জেলার মাননীয় পুলিশ সুপার  মোঃ আকবর আলী মুন্সী মহোদয়ের নির্দেশে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব মোঃ মাসুদ আলম (প্রশাসন ও অপরাধ) এর নেতৃত্বে এসআই (নিরস্ত্র) অসিত কুমার বসাক সহ পাবনা ডিবির একটি চৌকশ টিম এবং আমিনপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক রওশন আলী ও আমিনপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত  মোঃ এমরান মাহমুদ তুহিন এর নেতৃত্বে একটি টিমের যৌথ অভিযানে ভোলা জেলার চরফ্যাশন, ঢাকা, গাজিপুর এবং সিরাজগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে ৩ দিন ব্যাপি শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান পরিচালনা করে দুর্ধর্ষ ডাকাত চক্রের সদস্য-

  • ১। মোঃ মাসুদ করিম (৪৭), পিতা-মৃত-মোক্তার হোসেন, সাং-দহাকালা, থানা-উল্লাপাড়া,জেলা-সিরাজগঞ্জ।
  • ২। মোঃ আরিফুল ইসলাম ওরফে আরিফ (৩২), পিতা-মৃত-সাবের প্রামানিক, সাং-বড় পাঙ্গাসী মধ্যেপাড়া, থানা-উল্লাপাড়া,জেলা-সিরাজগঞ্জ।
  • ৩। মোঃ আরিফ (৩৩), পিতা- নান্নু মিয়া, সাং-উল্লাপাড়া পশ্চিমপাড়া, থানা-উল্লাপাড়া,জেলা-সিরাজগঞ্জ।
  • ৪। মোঃ শরিফুল ইসলাম (৩৮), পিতা-মোঃ আব্দুর শুকুর মিয়া, সাং-চর আঙ্গারু, থানা- শাহজাদপুর
  • ৫। মোঃ মাসুদ রানা (২৯), পিতা-মোঃ আব্দুল কাদের প্রামানিক, সাং-বড় পাঙ্গাসী প্রামানিক পাড়া, থানা-উল্লাপাড়া, জেলা-সিরাজগঞ্জ।
  • ৬। আলমগীর হোসেন ( ড্রাইভার হোসেন) (৩৫),পিতা- মৃত আহমেদ, সাং-নুরাবাদ, থানা-দুলারহাট, জেলা- ভোলা ।

এদের নিম্নবর্নিত আলামত সহ গ্রেফতার করা হয়। উক্ত ডাকাত দলের মুলহোতা মোঃ মাসুদ করিম।

এখানে উল্লেখ্য যে, যেসব ব্যক্তি বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে মোটা অংকের টাকা উত্তোলন করে সেই সব ব্যক্তির পিছনে ডাকাতগণ সোর্স নিযুক্ত করে তাদেরকে ফলো করতে থাকে।সুবিধাজনক স্থানে উক্ত ভিকটিম টাকা সহ পৌছামাত্র ডাকাতগণ তার পথরোধ করে নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে হ্যান্ডক্যাপ লাগিয়ে জোরপুর্বক দ্রুত মাইক্রোবাসে তুলে চোখ বেঁধে তার সর্বস্ব ছিনিয়ে নিয়ে নির্জন জায়গায় ফেলে দেয়।

উদ্ধারকৃত আলামতের বর্ণনাঃ

  • ১। একটি DB DMP লেখা ডিবির জ্যাকেট/কটি
  • ২। এক জোড়া হ্যান্ডকাফ
  • ৩। একটি ওয়াকিটকি সেট
  • ৪। পুলিশের ব্যবহৃত একটি সিগনাল লাইট।
  • ৫। ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি সাদা মাইক্রোবাস।
  • ৬। ঘটনাস্থলে ব্যবহৃত আসামীদের ৭ টি মোবাইল সেট এবং ১০ টি সিম ।

আসামীর অপরাধঃ

১। আসামী মোঃ মাসুদ করিম এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জেলায় অপহরন, ছিনতাই, ডাকাতি, অস্ত্র ও মাদক সহ মোট ১০টি মামলার রয়েছে।

২। আসামী মোঃ আরিফ এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জেলায় অপহরন, ছিনতাই, ডাকাতি, অস্ত্র ও মাদক সহ মোট ৮টি মামলার রয়েছে।

৩। আসামী মোঃ আরিফুল ইসলাম (আরিফ) এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন জেলায় অপহরন, ছিনতাই, ডাকাতি, অস্ত্র ও মাদক সহ মোট ৬টি মামলা রয়েছে।

৪। আসামী আলমগীর হোসেন (ড্রাইভার) এর বিরুদ্ধে ছিনতাই, মাদক সংক্রান্তে মোট ৪টি মামলা রয়েছে।

উপরোক্ত আসামীদের মধ্যে মোঃ মাসুদ, মোঃ আরিফ ও আলমগীর হোসেন ড্রাইভার এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় গ্রেফতারী পরোয়ানা মুলতবী রয়েছে।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২২-২০২৩ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park