বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আত্রাইয়ে দর্শনীয় ষাঁড় সম্রাটের দাম হাঁকা হয়েছে ১২ লাখ টাকা রাণীশংকৈলে পুকুড়ের পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু জামালপুরে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের অভিযোগ,থানায় মামলা মতলব উত্তরে ডাক্তারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পাল্টাচ্ছে হাসপাতালের পরিবেশ, বাড়ছে সেবার মান কাল থেকে গবিতে ঈদুল আযহার ছুটি  শুরু দম ফেলার ফুরসত নেই ত্রিশালের কামারদের! ছেলের সামনে বাবাকে  কুপিয়ে হত্যা, পিতা-পুত্র গ্রেফতার… রাণীশংকৈলে বিপুল উপস্থিতিতে শিক্ষক আইরিনের জানাযা ও দাফন সম্পন্ন চলনবিলে কৃষকের ঘরে উঠতে শুরু করেছে নতুন পাট, কৃষকের ফুটে উঠেছে রঙিন হাঁসি পাবনায় তীব্র লোডশেডিংয়ে দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ, ঈদ বাজারে লোকসানের আশঙ্কা

ত্রিশালে ভাঙ্গা ব্রিজে যাতায়াত, হাজারো মানুষের দুর্ভোগ

ইমরান হাসান
  • প্রকাশ মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২
  • ৪০ বার-পাঠিত

ত্রিশাল প্রতিনিধি>ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার বৈলর-কালিরবাজার সড়কে হাজারো মানুষের যাতায়াত দরার খালের উপর এ ব্রিজ দিয়ে। ব্রিজ ভেঙ্গে ছয় মাসেও নির্মান না করায় হাজারো মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়তই।

স্থানীয়রা জানান, এ ব্রিজ দিয়ে উপজেলার কাঁঠাল, কালিরবাজার, সেনবাড়ী, বালিপাড়া হয়ে পার্শ্ববর্তী উপজেলায় যাতায়াত করেন স্থানীয়রা। কাঁঠাল ইউনিয়নের একমাত্র যাতায়াতের সড়ক এটি। গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের দরার খালের উপর নির্মিত ব্রিজটি দীর্ঘ ছয় মাস ধরে ভেঙ্গে নির্মান করছে। এখন নিচে ডালাই দিয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান লাবনী এন্টার প্রাইজ দুই মাস ধরে কাজ বন্ধ রেখেছে। চলাচলের জন্য আলাদা সড়কের ব্যবস্থা করলেও বৃষ্টির পানিতে তা ভেঙ্গে গাড়ী চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ওই সড়কে চলাচলকারী হাজারো মানুষকে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ব্রিজটি মেয়াদ উত্তির্ন হওয়ায় নতুন করে নির্মান কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান লাভনী এন্টারপ্রাইজ। যে সময়ে কাজ শেষ হওয়ার কথা কিন্তু নিচের ডালাইয়ের অংশের কাজ করে দুইমাস ধরে বন্ধ রেখেছে কাজ। যাতায়াতের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করে দিলেও গত দুই দিনের বৃষ্টিতে পুরো রাস্তা ভেঙ্গে চলে গেছে দরার খালে। এখন গাড়ী যাতায়াত পুরোপুরিই বন্ধ রয়েছে। পায়ে হেটে চলাচলের জন্য নির্মান করা হয়েছে বাশ,কাঠ দিয়ে সাঁকো। এতে হাজারো মানুষের দুর্ভোগের যেন অন্ত নেই। প্রতিদিন এ সড়ক ও ব্রিজটি দিয়ে বিপুল সংখ্যক মানুষ ও যানবাহন চলাচল করে। যানবাহন না চলায় সাধারন মানুষকে ভেঙ্গে ভেঙ্গে যাতায়াতে দ্বিগুন টাকা গুনতে হচ্ছে।

স্থানীয় অটোরিকসা চালক মজিবর রহমান বলেন, এ ব্রিজের কাজ অনেকদিন ধরে করতেছে। মাত্র নিচের অংশের কাজ করেছে। ব্রিজ করতে এত সময় লাগার কথা না। তারা ছোট ঈদের পর থেকে ব্রিজের কাজও বন্ধ রাখছে। চলার জন্য আলাদা রাস্তা করে দিছিল কিন্তু বৃষ্টিতে পুরো রাস্তা ভেঙ্গে চলে গেছে। এখন রাস্তা দিয়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ রয়েছে। বাঁশের সাকো দিয়ে হেটে চলতে হচ্ছে। আল্লাহ জানে কবে এ ব্রিজের কাজ শেষ হবে।

স্থানীয় আশিকুর রহমান বলেন, এ ব্রিজের কারনে আমাদের গ্রামের মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আগে আমাদের কালির বাজার থেকে বৈলর যেতে ২০ টাকা ভাড়া লাগত এখন দুইবার গাড়ী পাল্টানোর কারনে দ্বিগুন টাকা ভাড়া গুনতে হচ্ছে। আর দোকানের মালামাল আনতেও তিন চার কিলোমিটার রাস্তা অতিরিক্ত ঘুরে তা আনতে হচ্ছে। কবে যেন শেষ হয় এ ব্রিজের কাজ।

স্থানীয় কাঁঠাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, এ ব্রিজের কাজ অনেকদিন ধরেই হচ্ছে। কিন্তু ঈদের পর থেকে কাজ বন্ধ রয়েছে। আমার এলাকার জনগনের এতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আমি ঠিকাদার, ইঞ্জিনিয়ার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে কথা বলেছি। দ্রæত সময়ের মধ্যে এ ব্রিজটির কাজ শেষ করার জন্য। কিন্তু গত দুই দিনের বৃষ্টিতে বিকল্প রাস্তাটি ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে গাড়ী চলাচলও বন্ধ রয়েছে। পায়ে হেটে কোন রকম চলছে মানুষ।

এ ব্রিজ নির্মানের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান লাভনী এন্টার প্রাইজের সত্বাধিকারী নুরু তালুকদার জানান, বৃষ্টির কারনে এ ব্রিজের কাজ আপাদত বন্ধ রয়েছে। ওয়েদার ভাল হলে ও পানি কমে গেলেই দ্রæত সময়ে কাজ ধরা হবে। বিকল্প যে রাস্তাটি ছিল বৃষ্টির কারনে ভেঙ্গে গেছে।

উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান জানান, বৃষ্টির পানির কারনে বিকল্প রাস্তাটি ভেঙ্গে যাতায়াতে সমস্যা হচ্ছে। ঠিকাদরী প্রতিষ্ঠানকে এ বিষয়ে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ব্রিজের ডালাইয়ের সব ইকুইপমেন্ট আনা হয়েছে। আশা করছি এক মাসের মধ্যেই ব্রিজের কাজ সম্পূর্ন হবে।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By Theme Park BD