1. admin@daynikdesherkotha.com : Desher Kotha : Daynik DesherKotha
  2. arifkhanhrd74@gmail.com : desher kotha : desher kotha
  3. mdtanjilsarder@gmail.com : Tanjil News : Tanjil Sarder
ঝালকাঠি জেলা পরিষদে কারা হচ্ছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী - দৈনিক দেশেরকথা
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ব্যাংকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জমার ক্ষেত্রে গ্রাহককে কোনো ধরনের প্রশ্ন না করার নির্দেশ: বাংলাদেশ ব্যাংক আবারও বাড়ল এলপিজি গ্যাসের দাম কিশোরগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষক জেল হাজতে কিশোরগঞ্জে পারিবারিক পুষ্টির চাহিদা পুরণে পেঁপের চারা বিতরণ লেখাপড়া করতে চায় প্রতিবন্ধী রজনী এবার বাবার পদাংক অনুসরণ করে সিনেমায় নাম লেখালেন ডিপজলকন্যা ওলিজা মনোয়ার দেশেরর ইতিহাসে সর্বোচ্চ সোনার দামের রেকর্ড ইবিতে ছাত্র ইউনিয়নের দিনব্যাপী ‘সাংগঠনিক কর্মশালা’ অনুষ্ঠিত আগামীকাল রবিবার চট্টগ্রামে ৩০টি প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জুন মাসের পর ডিজেল দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ

ঝালকাঠি জেলা পরিষদে কারা হচ্ছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী

ইলিয়াস খান
  • প্রকাশ শুক্রবার, ২৬ আগস্ট, ২০২২

 17 বার পঠিত

ঝালকাঠি প্রতিনিধি> সদ্য ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৭ অক্টোবর সারা দেশের ন্যায় ঝালকাঠিতেও জেলা পরিষদের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে ঝালকাঠি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হতে আগ্রহী ৫জন প্রার্থী আওয়ামীলীগের কেন্দ্রে যোগাযোগ শুরু করেছেন। তবে অন্য দলের কারো নাম শোনা যাচ্ছেনা এখনো।

যদিও জেলা পরিষদে দলীয় মনোনয়ন ঠিক করবেন দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা।
ঝালকাঠিতে আগ্রহীদের মধ্যে রয়েছেন বর্তমান জেলা পরিষদ প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, ঝালকাঠি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান, জেলা পরিষদের সদ্য বিদায়ী কমিটির সদস্য ও প্যনেল চেয়ারম্যান মো. ফায়জুর রব আজাদ এবং জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সালাহ্উদ্দিন আহম্মেদ সালেক। 
দলীয় একটি সুত্র জানিয়েছে, আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে যেসকল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেসব নির্বাচনে দলে অনুপ্রবেশকারীদের সরকারের গুরুত্বপুর্ণ আসনে বসানো থেকে বিরত থাকবেন আওয়ামীলীদের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। সে হিসেবে ঝালকাঠিতেও এই তালিকায় রয়েছে দু’জন প্রার্থী। তাদের মধ্যে একজন হলেন খান আরিফুর রহমান এবং অপরজন হলো ব্যবসায়ী সালাহ্উদ্দিন আহম্মেদ সালেক।

ঝালকাঠি জেলা পরিষদের বর্তমান প্রশাসক সরদার মো. শাহ আলমের জনপ্রিয়তা কম থাকলেও তিনি ক্লিন ইমেজের হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কোনো বিতর্র্ক নেই তৃনমুলে। এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম দখলে নিয়েছেন জেলা আওয়ামীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির।

তিনি ছাত্রলীগ থেকে আজ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন নিজ যোগ্যতায়। জেলা চেয়ারম্যান হিসেবে প্রার্থী হতে তার প্রচার সর্বশীর্ষে রয়েছে। তবে দলের এই নেতা বলেছেন তার রাজনৈতিক অভিভাবক আওয়ামী লীগের বর্ষিয়ান নেতা ঝালকাঠি-২ আসনের সংসদ সদস্য আমির হোসেন আমু যদি তাকে দলীয় মনোনয়ন ক্রয়ের অনুমতি দেয় সেক্ষেত্রে তিনি মনোনয়ন কিনবেন।

অপরদিকে রাজাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি, ঝালকাঠি জেলা পরিষদের সদ্য বিদায়ী কমিটির সদস্য প্যানেল চেয়ারম্যান মো. ফায়জুর রব আজাদ রয়েছেন আগ্রহীদের তালিকায়। তিনি এই নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের জন্য দলীয় মনোনয়ন পেতে দলের সম্মতি জ্ঞাপনের অনুবোধ করে আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হানিনা বরাবরে লিখিত পত্র দিয়েছেন।

মো. ফায়জুর রব আজাদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গনযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে বি.এ অনার্স এবং এম.এ পাশ করেছেন। পরবর্তীতে তিনি বিশ্বের প্রথম মুসলিম ইউনিভার্সিটি “তিউনিসিয়ার ইজ্জাতুয়ানা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চ শিক্ষা গ্রহন ও উচ্চতর গবেষনা কর্মের জন্য বিশ্ব ইসলামিক শিক্ষা বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিক সংস্থার (আইসিসকো) বৃত্তির জন্য যোগ্য বিবেচিত হন।

পাশাপাশি তিনি ঢাকা সরকারী আলীয়া মাদ্রাসা থেকে কামিল (হাদিস) ডিগ্রী লাভ করেছেন। ঝালকাঠি-১ আসনের সংসদ সদস্য বললুল হক হারুনের সহদর ফায়জুর রব আজাদ।

এদিকে আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা হওয়ার পর থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে আলোচনা চলছে কে হবেন ঝালকাঠি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। কে পাবেন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন, এ নিয়ে এখন দখিনের জনপদ ঝালকাঠি সর্বত্র আলোচনা চলছে।

মনোনয়ন পেতে সবাই নিজ নিজ দিক থেকে লবিং তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে। তবে এরা সকলেই বলছেন দল যদি তাদের মনোনয়ন দেন তাহলেই তারা প্রাার্থী হতে আগ্রহী।

তবে দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে কেউ প্রার্থী হবেন না। দলীয় সুত্রে জানাগেছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র, সংসদ সদস্য আমির হোসেন আমু যাকে পছন্দ করবেন তিনিই দলীয় মনোনয়ন পাবেন।

ঘেষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর, মনোনয়ন বাছাইয়ের তারিখ ১৮ সেপ্টেম্বর, বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল করা যাবে ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর, আপিল নিস্পত্তি ২২ থেকে ২৪ সেপ্টম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ২৬ সেপ্টেম্বর এবং ১৭ অক্টোবর সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত  নির্বাচনের ভোট গ্রহন করা হবে। এ নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন জেলা প্রশাসক।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park