বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আত্রাইয়ে দর্শনীয় ষাঁড় সম্রাটের দাম হাঁকা হয়েছে ১২ লাখ টাকা রাণীশংকৈলে পুকুড়ের পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু জামালপুরে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের অভিযোগ,থানায় মামলা মতলব উত্তরে ডাক্তারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পাল্টাচ্ছে হাসপাতালের পরিবেশ, বাড়ছে সেবার মান কাল থেকে গবিতে ঈদুল আযহার ছুটি  শুরু দম ফেলার ফুরসত নেই ত্রিশালের কামারদের! ছেলের সামনে বাবাকে  কুপিয়ে হত্যা, পিতা-পুত্র গ্রেফতার… রাণীশংকৈলে বিপুল উপস্থিতিতে শিক্ষক আইরিনের জানাযা ও দাফন সম্পন্ন চলনবিলে কৃষকের ঘরে উঠতে শুরু করেছে নতুন পাট, কৃষকের ফুটে উঠেছে রঙিন হাঁসি পাবনায় তীব্র লোডশেডিংয়ে দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ, ঈদ বাজারে লোকসানের আশঙ্কা

কিশোরগঞ্জে যমুনেশ্বরীর বালুচরের চিনাবাদামে স্বপ্ন বুনছেন কৃষক

দেশেরকথা
  • প্রকাশ রবিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২২
  • ১৫ বার-পাঠিত

আনোয়ার হোসেন,কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি> পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ,ঔষধি ফসল চিনাবাদাম। সোনার মোহর খ্যাত অর্থকরী এ ফসলের বাণিজ্যিকভাবে এই প্রথম চাষ হচ্ছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে। এ চাষাবাদে সার্বিক পরামর্শে সফলতার মুখ দেখাচ্ছেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। ২০২১-২০২২ অর্থবছরে রাজস্ব খাতের অর্থায়নে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে প্লোট প্রদর্শনী’র মাধ্যমে বারি চিনাবাদাম-৮ জাতের বীজ ও সার সরবরাহের মাধ্যমে এর চাষাবাদে কৃষকরা ঘুরে দাঁড়ানো স্বপ্ন বুনছেন। রোগবালাই,উৎপাদন খরচ কম,বাজার মূল্য ভালো,বিপননে ঝামেলাবিহীন,বালুচরসহ আলু, ভুট্টা’র জমিতে সহজে চাষযোগ্য হওয়ায় লাভের মুখ দেখছেন কৃষকরা।সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, চাঁদখানা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাঁদখানা শাহ্ পাড়া গ্রামে’র কোলঘেঁষে বহমান যমুনেশ্বরীর নদীর বুকে জেগে ওঠা ধু-ধু বালুচরে চিনাবাদামের হাট বসেছে। সবুজের সমারোহে বালু’র নিচে মুঠো মুঠো গুপ্তধনের আশায় উৎফুল্ল কৃষকের মন। এসময় মিরা খাতুন,যাদু মিয়া জানান,কৃষি বিভাগের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নুরুন্নবী ইসলামের উৎসাহে প্রথমবারের মতো আমাদের প্রত্যেককে ৩৩ শতাংশ করে চরের জমিতে বাদাম চাষে আগ্রহী করে তুলছেন। অনাবাদি, ধু-ধু বালু চরে এমন বাদাম হবে এটা অবিশ্বাস্য ব্যাপার।কম খরচে, ভাল ফলন পেয়ে অধিক লাভবান হবেন এমন প্রত্যাশা তাদের।শাহ্ পাড়া গ্রামের ফজলুর রহমান বলেন,বিঘা প্রতি বাদাম রোপন থেকে উত্তোলন খরচ হবে ২হাজার থেকে ৩হাজার টাকা। যা ফলন হবে ২০০কেজির মতো। এতে কৃষকেরা লাভবান হবেন। এবার বাজার মূল্য ভালো পেলে  আগামিতে আরো অধিক  জমিতে এর চাষাবাদ করবেন। পাশাপাশি পুটিমারী ইউপি”র সাধুপাড়া গ্রামের কৃষক বীরেন্দ্র নাথ রায়,বড়ভিটা মেলাবর পাঠাকরা গ্রামের বিসাধু বর্মন তারাও ৩৩ শতাংশ করে বালু মিশ্রিত জমিতে চিনাবাদামের চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হবেন। অল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় আগামিতে অনেক কৃষক বীজ নিয়ে বাদাম চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বলে তারা জানান।কৃষি অফিস জানায়,চিনাবাদামে চর্বি বা স্নেহ জাতীয় পদার্থ রয়েছে,যা কোলেস্টেরল কমায়।এ ছাড়া এতে বিভিন্ন ভিটামিন জাতীয় পদার্থ যেমন থায়ামিন,রিবোফ্লোবিন,নিয়াসিন, প্যানটোথেনিক অ্যাসিড,ভিটামিন বি-৬ ও ফোলেট রয়েছে প্রচুর পরিমাণে। যা মানুষে দুরারোগ্য ক্যান্সার ,রক্তস্বল্পতা,ডায়াবেটিস,জয়েন্ট এবং পিঠে ব্যাথার মত রোগ নিরাময়ে কাজ করে।কিশোরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার হাবিবুর রহমান বলেন,অনাবাদি,নদীর চর এলাকার মানুষকে বীজ,সার দিয়ে বাদাম চাষে উদ্ধুদ করা হয়েছে। এতে জমির ব্যবহার হচ্ছে।এতে বাদাম  চাষিরা বিঘা প্রতি ১৫০-২০০কেজি ফলন পেয়ে লাভবান হবেন।

দেশেরকথা/বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

এই সাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।কপিরাইট @২০২০-২০২১ দৈনিক দেশেরকথা কর্তৃক সংরক্ষিত।
Theme Customized By Theme Park BD